সোমবার , ১১ ডিসেম্বর ২০১৭
ব্রেকিং নিউজ

অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ ও নদী রক্ষায় আপোস নাই:নৌমন্ত্রী

ঢাকার আরও ১১ খাল উদ্ধারের নির্দেশস্টাফ রিপোর্টার,সময় সংবাদ.কম–ঢাকা:অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে বুড়িগঙ্গাসহ সব নদ-নদী রক্ষায় আপোস নাই। দখলদার যত প্রভাবশালীই হোক না কেন কারো সঙ্গেই এ ব্যাপারে আপোস করা হবে না, কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

বুধবার দুপুরে সচিবালয়ে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে নদীদূষণ রোধ ও নাব্যতা বৃদ্ধিসংক্রান্ত টাস্কফোর্সের সভা শেষে নৌমন্ত্রী শাজাহান খান সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান- যেমন মসজিদ, মাদ্রাসা, মন্দির এমনকি একটি দরবার শরীফও নদীর মধ্যে জায়গা দখল করে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। সেইসব ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের ইমাম, কর্মকর্তা ও সংশ্লিষ্ট অন্যদের সঙ্গে আমাদের কর্মকর্তারা বসেছেন, আলোচনা করেছেন।’

জেলা পর্যায়ে নদী দখল করে স্থাপন করা ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান সরতে ওইসব প্রতিষ্ঠানকে সরকারি জমি বরাদ্দ দিতে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানান নৌমন্ত্রী।

তিনি বলেন, আদি বুড়িগঙ্গাসহ রাজধানীর চারপাশের নদ-নদী রক্ষায় নদীর তীরে ২৮০ কিলোমিটার হাঁটারাস্তা নির্মাণ করা হবে।

মন্ত্রী বলেন, ঢাকাকে ঘিরে থাকা নদীগুলোর পূর্ণ জরিপ শেষ করে নদীর সীমানা পিলার বসানো হচ্ছে। ইতোমধ্যে ঢাকার আশপাশে ৯৪৭৭টি সীমানা পিলার বসানো হয়েছে।

তিনি জানান, ট্যানারি শিল্প সাভারে স্থানান্তরের পর ধলেশ্বরী নদী দূষিত হচ্ছে, শিল্প মন্ত্রণালয়কে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সুপারিশ করা হয়েছে।

পানিসম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ ছাড়াও সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly