শুক্রবার , ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭
ব্রেকিং নিউজ

আদর্শ ও ত্যাগের মনোভাব নিয়ে রাজনীতি করতে হবে:শেখ হাসিনা

Image result for নেতা-কর্মীদের আদর্শ ও ত্যাগের মনোভাব নিয়ে রাজনীতি করতে হবেস্টাফ রিপোর্টার,সময় সংবাদ বিডি- ঢাকা:দলীয় নেতা-কর্মীদের আদর্শের রাজনীতিতে সক্রিয় থাকার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আদর্শ ও ত্যাগের মনোভাব নিয়ে রাজনীতি করতে হবে। যারা ত্যাগের মনোভাব নিয়ে রাজনীতি করতে পারবে, তারা সফতলতার পাশাপাশি জনগণের মনে স্থান করে নিতে পারবে।

বৃহস্পতিবার সকালে গণভবনে স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

১৯৯৪ সালের ২৭ জুলাই স্বেচ্ছাসেবক লীগ প্রতিষ্ঠা হয়। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ১৯৭১ সালের এই দিনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতি ও প্রধানমন্ত্রী পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়েরও জন্ম হয়। ছেলের জন্মদিনে সবার কাছে দোয়া চেয়ে শেখ হাসিনা বলেন, আজ জয়ের জন্মদিন। এই দিনে দেশবাসীর কাছে ওর জন্য দোয়া চাই।

২৬ মার্চ প্রথম প্রহরে স্বাধীনতার ঘোষণা দেওয়ার পর বঙ্গবন্ধুকে আটক করে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী। সে সময়ে শেখ হাসিনাসহ পরিবারের অন্য সব সদস্যকে ধানমণ্ডির একটি বাড়িতে বন্দী করে রাখা হয়। ওই সময়ের স্মৃতিচারণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি তখন কয়েক মাসের অন্তঃসত্তা অবস্থায় বন্দী ছিলাম। আমার মাকেও হাসপাতালে যেতে দেওয়া হয়নি।

জয়ের নামকরণের স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, ওর জন্মের মধ্য দিয়ে বন্দীদশায় থেকেও আমরা সজীবতা পেয়েছিলাম। তাই মা নাম রেখেছিলেন সজীব। আর ওর নানা নাম রেখেছিলেন ‘জয়’।

বাষ্পরুদ্ধ কণ্ঠে শেখ হাসিনা বলেন, ২৩ মার্চ স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করা হয়েছিল। সেদিন আব্বা বলেছিলেন, আমি থাকবো কিনা জানি না, দেখতে পারবো কিনা জানি না। তোর ছেলে হবে। সে স্বাধীন বাংলাদেশের নাগরিক হবে। ছেলের নাম ‘জয়’ রাখবি।’

মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ হোসেনের প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পুতুল অটিস্টিক শিশুদের জন্য কাজ করে। ইউএনডিপিতে কর্মরত ছোট বোন শেখ রেহানার ছেলে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিকের কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ববি আমাদের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। ও নীরবে কাজ করে যায়। সামনে আসে না।

ব্রিটিশ পার্লামেন্টের এমপি ও ভাগ্নি টিউলিপ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, টিউলিপ ওর নির্বাচনী এলাকার জনগণের এতো আস্থা অর্জন করেছে যে, ও ১৬ হাজার ভোটে জয়ী হয়েছে। শেখ হাসিনা আরও বলেন, আমাদের সন্তানরা মানুষের মতো মানুষ হয়েছে। আমি তিন তিনবারের প্রধানমন্ত্রী, ওরা কখনো আমাকে ব্যবসা-বাণিজ্য, অর্থ-সম্পদের জন্য বিরক্ত করেনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মানুষ আবার আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনবে। কারণ তারা এ সরকারের উন্নয়নের সুফল পাচ্ছে। আওয়ামী লীগ সরকারের ধারাবাহিকতার কারণেই এটি সম্ভব হয়েছে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন- স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা মোহাম্মদ আবু কাওসার, সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথ প্রমুখ।

Print Friendly