শুক্রবার , ২৪ নভেম্বর ২০১৭
ব্রেকিং নিউজ

আন্ধারমানিক ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতিক শতভাগ এগীয়ে

19987374_1591177027599460_1764297185_n

স্টাফ রিপোর্টার, সময় সংবাদ বিডি-

বরিশাল মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলার আন্ধারমানিক ইউনিয়ন পরিষদ ৬ষ্ঠ ধাপের নির্বাচনের ভোট গ্রহন আগামী ১৩ জুলাই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। স্থগিত হওয়া এই ইউনিয়নে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতিক নিয়ে প্রার্থী হয়েছেন নাসির উদ্দিন খোকন।  জনসমর্থনে এগিয়ে থাকায়  দলীয় ভাবে নাসির উদ্দিন খোকনকে সমর্থন করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে নির্বাচনি প্রচারনা চালীয়ে যাচ্ছেন।

মেহেন্দীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মহিদুল ইসলাম বলেন,  আন্ধারমানিক ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমাদের আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী নাসির উদ্দিন খোকন জনসমর্থনে শতভাগ এগীয়ে রয়েছেন। তিনি বলেন, আমরা আশাকরি এই নির্বাচনে নাসির উদ্দিন খোকন জয়ী হবে।

19988970_1591176210932875_399288616_n

এই ইউপিতে নৌকা প্রতিক নিয়ে প্রার্থী হতে চেয়েছিলেন ক্ষমতাসীন দলের আরেক নেতা কাজি শহিদুল ইসলাম। তবে দলীয় কার্যক্রমে পিছিয়ে থাকায় দল থেকে কাজি শহিদুল ইসলামকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে মননীত করা হয়নি। দলীয় প্রতিক না পেয়ে অবশেষে তিনি আনারষ প্রতিক নিয়ে সতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহন করেছেন।

এদিকে দলীয় সিদ্ধান্তকে তোয়াক্কা না করে সতন্ত্র প্রার্থী হওয়ায় কাজি শহিদুল ইসলামকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। রোববার বিকেলে বরিশাল জেলা আওয়ামীলীগের উপ দপ্তর সম্পাদক এ্যাড. কাইউম খান কায়সার স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

বহিস্কারের পরও কাজি শহিদুল ইসলাম আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থীর বিপক্ষে দাড়িয়ে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করেছেন।  এমনকি দলীয় জোটের অনেকেই কাজি শহিদুল ইসলামকে সমর্থন করে এলাকায় নির্বাচনি প্রচারনা চালাচ্ছেন।

খোঁজনিয়ে জানা যায়, সেচ্ছাসেবক লীগের ইউপি সভাপতি তুহিন, সাধারন সম্পাদক বিপু, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু রাইহান সহ অনেকেই দলের সিদ্ধান্তকে অমান্য করে কাজি শহিদুল ইসলামের পক্ষে প্রচারনা চালাচ্ছেন।

তবে দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে নির্বাচনে অংশগ্রহন করায় দলের কোন ভোটার এই অংশগ্রহনকে সঠিক ভাবে দেখছেন না। এলাকার ভোটারদের অনেকেই বলছেন, কাজি শহিদুল ইসলাম আওয়ামীলীগের কেউ নন। তিনি আনারষ মার্কা নিয়ে আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী হয়েছেন। তাই আমরা আওয়ামীলীগের ভোটাররা তাকে ত্যাগ করেছি।

উল্লেক্ষ্য, এই ইউপিতে বিএনপির কোন প্রার্থী নির্বাচনে অংশগ্রহন করছেন না।

Print Friendly