কিশোরগঞ্জের সাত পৌরসভাই আ.লীগের দখলে

0
233

1451489148

সময় সংবাদ বিডি,কিশোরগঞ্জ:-

কিশোরগঞ্জ জেলার ৭টি পৌরসভা নির্বাচনে প্রাপ্ত বেসরকারী ফলাফলে ৬টিতে আওয়ামী লীগ ও একটিতে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী জয় লাভ করেছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে রয়েছেন ৫ জন বিএনপি, একজন আওয়ামী লীগ ও একজন আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী।
কিশোরগঞ্জ পৌরসভায় আওয়ামী লীগ মনোনীত পারভেজ মিয়া পেয়েছেন ২২ হাজার ৯শত ৭৭ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মাজহারুল ইসলাম পেয়েছেন ১৭ হাজার ৮শত ৫৯ ভোট।
হোসেনপুর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের আব্দুল কাইয়ুম খোকন পেয়েছেন ৪ হাজার ৮ শত ৭২ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মো. সৈয়দ হোসেন পেয়েছেন ৪ হাজার ৭ শত ২৭ ভোট।
করিমগঞ্জ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী মো. আবদুল কাইয়ুম পেয়েছেন ১০ হাজার ১ শত ৮৬ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের কামরুল ইসলাম চৌধুরী মামুন পেয়েছেন ৪ হাজার ৯ শত ১৬ ভোট।
কটিয়াদী পৌরসভায় আওয়ামী লীগের শওকত উসমান শুক্কুর আলী পেয়েছেন ১২ হাজার ৯ শত ১৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির তোফাজ্জল হোসেন খান দিলীপ পেয়েছেন ৭ হাজার ৩ শত ৫৫ ভোট।
বাজিতপুর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের আনোয়ার হোসেন আশরাফ পেয়েছেন ১০ হাজার ১ শত ৬৪ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির এহেসান কুফিয়া পেয়েছেন ৪ হাজার ১ শত ৬২ ভোট।
কুলিয়ারচর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের আবুল হাসান কাজল পেয়েছেন ৯ হাজার ৩ শত ৪৪ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির হাজী শাফী উদ্দিন পেয়েছেন ৭ হাজার ৫ শত ৮৫ ভোট।
ভৈরব পৌরসভায় আওয়ামী লীগের ফখরুল আলম আক্কাছ পেয়েছেন ৩০ হাজার ৫ শত ৯৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির হাজী মোঃ শাহীন পেয়েছেন ১৯ হাজার ৯ শত ৫৩ ভোট।
তবে ভোটে অনিয়ম ও কারচুপির প্রতিবাদে বিএনপি প্রার্থী হাজী মো. শাহীন বুধবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন। এছাড়া একই অভিযোগে বাজিতপুর পৌরসভায় আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী শওকত আকবরও সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here