‘গুপ্তহত্যায় জড়িতদের খুঁজে খুঁজে বের করা হবে’

0
208

স্টাফ রিপোর্টার, সময় সংবাদ বিডি- ঢাকা:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, গুপ্তহত্যার সঙ্গে জড়িতদের খুঁজে খুঁজে বের করা হবে। এটা সময়ের ব্যাপার।

শনিবার গণভবনে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে প্রারম্ভিক বক্তব্যে  তিনি এ কথা বলেন।

বৈঠকের শুরুতেই আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে শেখ হাসিনার হাতে ফুলের তোড়া তুলে দেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কেউ পার পাবে না। বাংলাদেশ ভূখণ্ডের দিক দিয়ে ছোট। গুপ্তহত্যাকারীদের খুঁজে খুঁজে বের করব।  সূত্রটা কী, কাদের মদদে, কারা অর্থ দিচ্ছে, কাদের পরিকল্পনায় এই কাজগুলো তারা করছে-এই সূত্রগুলো খুঁজে বের করা হবে।’

আওয়ামী লীগই হত্যাকাণ্ডগুলো ঘটাচ্ছে—বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘ খুন করার অভ্যাস আমাদের নয়, তার আছে। কারণ, তারা আমাকে খুন করার জন্য বারবার চেষ্টা করেছে।’

 

তিনি বলেন, বিএনপির রাজনীতি লুটপাটের ও দুর্নীতির রাজনীতি। জনগণকে সম্পৃক্ত করে নয়, বরং জনগণকে হত্যা করে ক্ষমতায় আসতে চেয়েছিল তারা।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘সরকার যদি প্রকাশ্যে হত্যা বন্ধ করতে পারে, তাহলে এই গুপ্তহত্যাও বন্ধ করতে পারবে। এটা শুধু সময়ের ব্যাপার।’

গুপ্তহত্যায় জড়িতদের হুঁশিয়ার করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজকে পুলিশের পরিবারের উপর আঘাত করা হয়েছে। যারা এটা করে, তারা ভুলে যায় কেন যে তাদেরও পরিবার আছে। তাদেরও বাবা-মা আছে, ভাই-বোন আছে, ছেলে-মেয়ে আছে।’

গুপ্তহত্যা বন্ধে দেশবাসীকে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কেউ যখন আঘাত করবে, দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দয়া করে দেখবেন না। বরং সবাই একজোট হয়ে সেটাকে প্রতিহত করার চেষ্টা করবেন। আপনাদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী থাকবে।’

জঙ্গিবাদী কার্যক্রমে যেন সন্তানরা জড়িয়ে না পড়ে, সেজন্য অভিভাবকদের সজাগ থাকার আহ্বানও জানান তিনি।

ইসলামের নামে হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ইসলাম ধর্ম তো কাউকে খুন করতে বলেনি। অহেতুক নিরীহ মানুষগুলোকে খুন করা, এটা কোন ধরনের ধর্ম পালন?’

 

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here