বুধবার , ২২ নভেম্বর ২০১৭
ব্রেকিং নিউজ

টাইগারদের থাবায় অস্ট্রেলিয়া বধ

ক্রীড়া ডেস্ক,সময় সংবাদ বিডিঢাকা: ২ ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয় ছিনিয়ে নিলো বাংলাদেশ।

সুযোগ ছিল দুইদলেরই। ওয়ার্নার-স্মিথের জুটিতে কিছুটা এগিয়ে ছিল অস্ট্রেলিয়া। তবে ঠিক সময় জ্বলে উঠলেন সাকিব। সাকিবের বিধ্বংসী বলে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঐতিহাসিক জয় তুল নিল বাংলাদেশ।

স্বাগতিকদের এ জয় ২০ রানের। এ নিয়ে প্রথমবার টেস্টে অজি বধ করলো টাইগারররা। এ জয়ে সামন থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। তাকে যোগ্য সঙ্গ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞ স্পিনার তাইজুল ইসলাম। এরই মধ্যে ৫ উইকেট শিকার করেছেন সাকিব। আর তাইজুল নিয়েছেন ৩ উইকেট।

চতুর্থ দিনে ২ উইকেটে ১০৯ রান নিয়ে ব্যাট করতে নামে অস্ট্রেলিয়া। শুরুতে দেখেশুনে খেলার চেষ্টা করেন ডেভিড ওয়ার্নার ও স্টিভ স্মিথ। তারা দুর্দান্ত গতিতে ছুটে চলছিলেন। তবে তাতে বাধা হয়ে দাঁড়ান সাকিব। দলীয় ১৫৮ রানে ওয়ার্নারকে ফিরিয়ে তাদের গতি রোধ করেন তিনি। ফেরার আগে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি তুলে নেন অজি ওপেনার। শেষ পর্যন্ত ১৩৫ বলে ১৬ চার ও ১ ছক্কায় ১১২ রানের লড়াকু ইনিংস খেলেন এ বাঁহাতি ব্যাটসম্যান।সঙ্গী হারিয়ে অবশ্য বেশিক্ষণ স্থায়ী হতে পারেননি স্মিথ। এবারো শিকারী সাকিব। তার বলে দলীয় ১৭১ রানে মুশফিকের গ্লাভসবন্দি হয়ে ফেরেন অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক (৩৭)।এরপর ম্যাক্সওয়েলকে সঙ্গে নিয়ে জুটি গড়ার চেষ্টা করেন হ্যান্ডসকম্ব। তবে তাদের সেই চেষ্টা ভেস্তে দেন বাংলাদেশ বিশেষজ্ঞ স্পিনার তাইজুল ইসলাম। দলীয়  ১৮৭ রানে হ্যান্ডসকম্বকে (১৫) ফিরিয়ে বাংলাদেশকে খেলায় ফেরান তিনি।এর মিনিট পাঁচেক পর ম্যাথু ওয়েডকে (৪) সাকিব ফেরালে দুর্দান্তভাবে খেলায় ফেরে টাইগাররা। এতে ভীষণ চাপে পড়ে অস্ট্রেলিয়া। এ চাপের মধ্যে অ্যাস্টন অ্যাগারকে কট অ্যান্ড বোল্ড করে অজিদের টুঁটি চেপে ধরেন তাইজুল।অ্যাগার ফিরে গেলে কামিন্সকে নিয়ে লড়ার চেষ্টা করেন ম্যাক্সওয়েল। তাকে সঙ্গ দিচ্ছিলেন কামিন্সও। ফের রুখে দাঁড়ান সাকিব। পথের বাধা হয়ে থাকা ম্যাক্সওয়েলকে (১৪) তিনি ফেরালে জয়টা সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায় বাংলাদেশের।এতে এ টেস্টে ১০ উইকেট পেলেন সাকিব। প্রথম ইনিংসে পেয়েছিলেন ৫ উইকেট। আর সবমিলিয়ে টেস্টে দ্বিতীয়বার ১০ উইকেট পেলেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।শেষদিকে বাংলাদেশকে কিছুটা ভোগান নাথান লায়ন ও প্যাট কামিন্স। তারা গড়েন ২৯ রানের জুটি। দলীয় ২২৮ রানে লায়নকে (১৪) ফিরিয়ে তাদের জুটি ভাঙেন মিরাজ। লায়ন ফিরে গেলে      এর আগে বাংলাদেশের দেয়া ২৬৫ রানের লক্ষ্যে তৃতীয় দিনে ব্যাট করতে নেমে ২৮ রানে ২ উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে পড়ে অস্ট্রেলিয়া। দলীয় ২৭ রানে মিরাজের বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পড়ে ফেরেন রেনশো (৫)। দলীয় স্কোরবোর্ডে আর ১ রান যোগ হতেই সাকিবের শিকার হয়ে ফেরেন উসমান খাজা (১)।পরে ভাগ্যের সহায়তা ও টেকনিক বলে সেই বিপর্যয় কাটিয়ে ওঠে সফরকারীরা। নায়কের ভূমিকা পালন করেন সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার ও অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। তারা গড়েন ১৩০ রানের জুটি।অবশ্য এর মধ্যে ফিরতে পারতেন ওয়ার্নারও। তবে স্লিপে তার ক্যাচ মিস করেন সৌম্য সরকার।এর আগে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে সবক’টি উইকেট হারিয়ে ২২১ রান তোলে মুশফিক বাহিনী। আর প্রথম ইনিংসে করে ২৬০ রান। জবাবে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ২১৭ রানে অলআউট হয় অস্ট্রেলিয়া। এতে জয়ের জন্য সফরকারীদের লক্ষ্য দাঁড়ায় ২৬৫ রান।

প্রথম ইনিংসের মত দ্বিতীয় ইনিংসেও পাঁচ উইকেট নেন সাকিব আল হাসান।

Print Friendly