ডিএনসিসি ওয়ার্ড-২১ঃ দলীয় পছন্দের তালিকায় তিনজন

0
997

ডেস্ক নিউজ, সময় সংবাদ বিডি-

ঢাকাঃ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) ২১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে প্রার্থী হিসেবে ইতিমধ্যে আওয়ামী লীগের ৮ থেকে ১০ জন নেতার নাম শোনা গেলেও দলীয় হাইকমান্ডের পছন্দের তালিকায় রয়েছেন হাতে গুনা তিনজন মনোনয়ন প্রত্যাশির নাম।

এই ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর মরহুম ওসমান গনীর ছেলে মনোনয়ন প্রত্যাশি ব্যারিস্টার তাপসের নাম পছন্দের তালিকায় প্রথমেই রয়েছে বলে গোপন সূত্রে জানা গেছে।

আর এই তালিকার দ্বিতীয় স্থানে আছেন আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশি বাড্ডা থানা আওয়ামী যুবলীগের আহবায়ক কায়সার মাহমুদ।

যদিও এই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে মনোনয়নের জন্য স্থানীয় আওয়ামী লীগের ভাইটাল বেশকিছু নেতাকর্মী জোর তদবির চালিয়ে যাচ্ছেন। এদের মধ্যে থেকে দলীয় হাইকমান্ডের পছন্দের তালিকায় তিন নাম্বারে উঠে এসেছে একজন নেতার নাম। তিনি এই ওয়ার্ডের স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মিজানুর রহমান ধনু।

আওয়ামী লীগের দলীয় গোপন সূত্রে এই তিন জন মনোনয়ন প্রত্যাশি তাদের পছন্দের তালিকায় রয়েছেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

গোপন সূত্রে আরও জানা গেছে, পছন্দের তালিকায় থাকা তিনজন মনোনয়ন প্রত্যাশির বিষয়ে দলীয়ভাবে যাচাই-বাছাই করে যাকে যোগ্য মনে হবে তাকেই মনোনয়ন দেয়া হবে।

এই ব্যাপারে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীর সাথে কথা বলে জানা গেছে, দল থেকে যাকে মনোনয়ন দিবে স্থানীয় আওয়ামী লীগ তার পক্ষেই কাজ করবে বলে জানিয়েছেন তারা।

এদিকে আওয়ামীলীগ থেকে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) এর ২১ নম্বর ওয়ার্ডের উপ-নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে আরও যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন, ঢাকা মহানগর আওয়ামীলীগ নেতা হাবিবুর রহমান সাচ্চা, বাড্ডা থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নুরুজ্জামান কায়েস, বাড্ডা ৯৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন আহমেদ, বাড্ডা থানা আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক কামরুল ইসলাম মিন্টু, বাড্ডা থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক তালাল রিজভী, বাড্ডা থানা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মজিবর রহমান। তবে তিনি ব্যারিস্টার তাপসের বিকল্প হিসেবে থাকবেন বলে জানা গেছে।

আরও রয়েছেন, এই ওয়ার্ডের স্থানীয় ১৯৯০ দশকের স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলন ও গণঅভ্যুথান এর সময়কার বৃহত্তর গুলশান থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ফারুক মিলন।

উপ-নির্বাচনের বিষয়ে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী ব্যারিস্টার তাপস বলেন, দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যদি চান বা তিনি যদি আমাকে মনোনয়ন দেন তাহলে অবশ্যই আমি নির্বাচনে জয়ী হবো। তবে তিনি দলের ত্যাগী হিসেবে দলীয় মনোনয়ন পাবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বাড্ডা থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি নুরুজ্জামান কায়েস বলেন, দীর্ঘদিন ধরে দলের নীতি আদর্শ মেনে দলের জন্য কাজ করছি। আসন্ন ডিএনসিসি ২১ নম্বর ওয়ার্ডের   উপ-নির্বাচনে আমি একজন কাউন্সিলর প্রার্থী। তৃণমূলের নেতাকর্মীরাও চাইছেন যেন আমি নির্বাচন করি।

আওয়ামী লীগ দলীয় নেতাকর্মীরা জানান, বিএনপি-জামায়াত নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবে না এমন ধারণা থেকেই আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীর ছড়াছড়ি। কেননা বিএনপি-জামায়াত উপ-নির্বাচনে না আসলে আওয়ামী লীগ থেকে প্রার্থী হতে পারলেই খুব সহজেই কাউন্সিলর নির্বাচিত হবার সম্ভাবনা বেশী থাকায় মনোনয়ন চাইবেন অনেকেই।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here