তিতাসে পূর্ব শত্রুতার জেরে ঘরে আগুন

0
137

titas photo 13.03 (2)

আকতার হোসেন, সময় সংবাদ বিডি –

কুমিল্লাঃ  কুমিল্লার তিতাসে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ৭টি ঘর অগ্নিকান্ডে স্বর্ণালঙ্কার নগদ টাকা ২টি মোটর সাইকেল ও আসবাবপত্রসহ বিভিন্ন মালামাল পুড়ে প্রায় কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

ঘটনাটি ঘটে গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার কলাকান্দি ইউনিয়নের দড়িমাছিমপুর গ্রামে।

আগুন নিয়ন্ত্রনে আনতে গিয়ে এলাকার মোঃ উজ্জল মিয়া, মোঃ নজরুল ইসলাম, নাঈম মিয়া, তোফাজ্জল হোসেন, নুরুজ্জামান, আব্দুল হোসেন, আবুল কালাম, রিয়াজুল ও রফিকসহ প্রায় ১৫ থেকে ২০জন আহত হয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে এলাকাবাসী ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, দড়িমাছিমপুর গ্রামের মৃত মিজানুর রহমানের ৪ছেলের মধ্যে সবাই প্রবাসে থাকে, মেয়েদেরও বিয়ে হয়ে গেছে। বাড়ীতে কেবল তার বৃদ্ধ স্ত্রী রহিমা বেগম (৬২) থাকে। তিনি রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পরেন। হঠাৎ আগুনের লেলিহান শিখায় পুরো ঘর আলোকিত হয়ে গেলে রহিমা বেগম আতঙ্কে চিৎকার দিয়ে উঠে।

তার চিৎকারে প্রতিবেশীরা একে একে ছুটে আসে। এ সময় ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিয়েই যে যার যার মত করে কলস, বালতি, ভেজা কাথা, বালু দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রন করার চেষ্ঠা করে। টানা দুই ঘন্টা আগুন নেভানোর চেষ্ঠা করেও পন্ডশ্রম বই কিছুই করতে পারেনি। আগুনের লেলিহান শিখা দমকা হাওয়ার মত মুহুর্তের মধ্যেই চোখের সামনে সব পুরে কয়লা করে দেয়। পুড়ে ছাই হওয়ার আধা ঘন্টা পর প্রায় রাত ২টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে পৌছে বলে এলাকাবাসী জানায়।

অগ্নিকান্ডে মৃত মিজানুর রহমানের ৪ছেলের ৪টি চার চালা ঘর এবং প্রতিবেশী তাইজুদ্দিন ও এলাহীর ১টি চারচালা ও দুটি দু’চালা কাঠের ঘর ঘরের এবং ভিতরে থাকা ফ্রিজ রঙ্গিন টিভি, ৩০ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, ২টি মোটর সাইকেল, নগদ দুই লক্ষ টাকা কাঠের আসবাবপত্র মিলিয়ে প্রায় ৮০ থেকে ৮৫ লক্ষ টাকার মত ক্ষতি হয়েছে বলে এলাকাবাসী ধারনা করছে। আগুনের দাবানলে রেহাই পায়নি আশপাশের প্রায় ১০-১২টি ফলজ ও বনজ বৃক্ষ।

মিজানুর রহমানের জামাতা ইসমাইল হোসেন সময় সংবাদ বিডি ডট কমকে জানায়, গত মাসখানেক পূর্বে প্রতিবেশীরা আমার এক আত্মীয়কে মেরে গুরুতর আহত করে। এই ঘটনায় তিতাস থানায় উজ্জল বাদী হয়ে মামলা রুজু করার পর থেকেই আসামীরা বিভিন্ন সময় হুমকি ধমকি দিয়ে আসছে মামলা প্রত্যাহারের জন্য। আমরা মামলা প্রত্যাহার না করায় রাতের আধাঁরে ওরাই গান পাউডার দিয়ে পরিকল্পিতভাবে এই অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটিয়েছে। আমরা এ বিষয়ে তিতাস থানায় মামলা দায়েরের জন্য আছি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকার অনেকেই জানান, পেট্রোল অথবা গান পাউডার  দিয়ে আগুন দেয়েছে বলে তাদের ধারণা । তারা বলেন পেট্রোল অথবা গান পাউডার না হলে এত তারাতারি ৭টি ঘরসহ সব কিছু পুরে শেষ হবার কথা না ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here