‘তোর মত কত সাংবাদিক বাইন্দা রাখছি’

0
176

kumilla

আকতার হোসেন, সময় সংবাদ বিডি-

কুমিল্লাঃ ‘ঘটনাটি নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে চেয়ারম্যানের মতই অবস্থা হবে। তোর মত কত সাংবাদিক বাইন্দা রাখছি।’ এভাবেই সাংবাদিককে হুমকি দিলেন হোমনা উপজেলার জয়নগর গ্রামের আঃ মতিন।

কুমিল্লার হোমনায় আ’লীগ নেতা ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে  চাঁদাবাজির মামলা তথ্য সংগ্রহ করতে গেলে এভাবে তথ্য সংগ্রহকারী সাংবাদিককে  হুমকি দেন মামলার বাদী আঃ মতিন।

এলাকাবাসী মামলা সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ২০ নভেম্বর রাতে উপজেলার জয়নগর গ্রামের মালয়শিয়া প্রবাসী নুরুল ইসলামের স্ত্রীর ঘরে একই গ্রামের টাউট আঃ মতিনের ছেলে শাহিন মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে প্রবেশ করে। ঘরের মধ্যে ব্যতিক্রম কিছু শব্দ হলে নুরুল ইসলামের মা চোর বলে চিৎকার দিয়ে মতিনের ছেলে শাহিনকে হাতে নাতে আটক করে প্রতিবেশীদের কাছে হস্তান্তর করে।

কালমিনা বাজারের তানভীর লাইব্রেরীর মালিক আঃ মতিন সম্পর্কে নুরুল ইসলামের উকিল শ্বশুর। এই ঘটনার জের ধরে দীর্ঘদিন যাবত দফায় দফায় গ্রাম্য শালিশ হলেও মতিন এতে পাত্তাই দিচ্ছে না।

সব শেষে গত ১১ ফেব্রুয়ারী দুলালপুর ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম্যানের সভাপতিত্বে উপজেলার অসংখ্য নেতাকর্মীদের উপস্থিতিতে ঘটনার মিমাংসা দেয়ার লক্ষে উভয় পরিবারের সম্মতিতে একটা সুস্থ্য সমাধানে পৌছে। বিচারের মাত্র একদিন পর মতিন তার ছেলেকে প্রবাসে পাঠিয়েই এলাকার কিছু দালাল বাটপারের পরোচনায় পরে উপজেলা আ’লীগ নেতা ও দুলালপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ জসিম উদ্দিন সওদাগরসহ ৮ জনকে আসামী করে কুমিল্লা কোর্টে গত ১৫ ফেব্রুয়ারী তারিখে একটি মিথ্যে চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করে বলে এলাকাবাসী সাংবাদিকদের জানায়।

দুলালপুর গ্রামের মোশারফ হোসেন সময় সংবাদ বিডি ডট কমকে জানায়, একজন ন্যায় বিচারককে যদি মিথ্য মামলা দিয়ে সত্য ঢাকার পায়তারা চালায় একজন আসামী। তাহলে এদেশে মানুষ বিনা বিচারে ভোগতে হবে।

জয়নগর গ্রামের নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন জানায়, মতিন তার লম্পট ছেলেকে বাচানোর জন্য দ্রুত বিদেশে পাঠিয়ে দিয়ে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মিথ্য মামলা দিয়ে হয়রানীর চেষ্ঠা করছে। যেখানে একজন বাবার উচিৎ ছিল দুশ্চরিত্রা ছেলেকে শাসিয়ে সঠিক বিচার মেনে নেয়া।

মতিনের সাথে যোগাযোগ করলে সে সাংবাদিকদে বলে, ‘ঘটনাটি নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে চেয়ারম্যানের মতই অবস্থা হবে। তোর মত কত সাংবাদিক বাইন্দা রাখছি।’

এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন সওদাগর সময় সংবাদ বিডি ডট কমকে বলেন, আঃ মতিনের ছেলের অনৈতিক কাজের ঘটনা নিয়ে আমার কার্যালয়ে সালিশ বসে। ওই শালিসে সকলের সম্মতিতে তাকে দেড় লাখ টাকা জাড়িমানা করা হয়েছে। চাদাঁ বাজির ঘটনার প্রশ্নই আসেনা। এটা মিথ্যা ষঢ়যন্ত্র এবং উদ্দেশ্যপ্রনোদিত।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here