দেশি-বিদেশি মুদ্রাপাচারে স্মার্ট ও সুদর্শন তরুণদের ব্যবহার

0
80

%e0%a6%ae%e0%a7%81%e0%a6%a6%e0%a6%a6%e0%a6%a6%e0%a6%a6%e0%a6%a6%e0%a6%a6%e0%a6%a6স্টাফ রিপোর্টার, সময় সংবাদ বিডি- ঢাকা:হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মুদ্রাপাচার সিন্ডিকেটে জড়িত ২৫টি দেশি-বিদেশি সুদর্শন যুবকের সংঘবদ্ধ চক্র। মুদ্রাপাচারে স্মার্ট ও সুদর্শন তরুণদের ব্যবহার করা হচ্ছে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, মুদ্রাপাচারের সঙ্গে কিছু মানি এক্সচেঞ্জ প্রতিষ্ঠান জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে।কাস্টমস, শুল্ক গোয়েন্দা ও এপিবিএন সূত্রে জানা গেছে, শাহজালাল বিমানবন্দরকে নিরাপদ রুট হিসেবে ব্যবহার করছে চক্রের সদস্যরা। অনেকে মুদ্রার চালান নিয়ে যান, ফেরেন স্বর্ণের চালান নিয়ে। চালান ধরা পড়লেও তা একেবারেই কম।

ওই বছরেরই ২৭ এপ্রিল বিমানবন্দরের কার্গোর রফতানি শাখায় সবজির কার্টনে প্রায় কোটি টাকার বিদেশি মুদ্রা উদ্ধার করে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ। এরও আগে বাংলাদেশি মুদ্রায় ১ কোটি ২২ লাখ টাকার সমপরিমাণ বিদেশি মুদ্রাসহ একজনকে আটক করে বিমানবন্দর শুল্ক গোয়েন্দা কর্তৃপক্ষ।

বিমানবন্দর সংশ্লিষ্টরা বলছেন, কিছু কাস্টমস কর্মকর্তাসহ অন্যদের ‘ম্যানেজ’ করে অর্ধশত সুদর্শন যুবক নানা কৌশলে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে প্রতিদিন মুদ্রা দেশের বাইরে পাচার করছে। তারা নিরাপদে বৈদেশিক মুদ্রার চালান দুবাই নিয়ে গেছে এবং ফেরার সময় স্বর্ণের চালান নিয়ে এসেছে। কিন্তু ধরা পড়েনি।

এ ব্যাপারে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের মহাপরিচালক ড. মইনুল খান বলেন, ‘যে পরিমাণে মুদ্রাপাচার হচ্ছে সে হারে জড়িতরা আটক হচ্ছে না। প্রাথমিকভাবে বেশ কিছু তথ্যপ্রমাণ পেয়েছি। দ্রুত একটি বড় সিন্ডিকেটকে ধরা সম্ভব হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here