পাহাড়ের সজীবতায় বাড়ছে মানুষের ভিড়

0
203

%e0%a6%a4%e0%a6%95%e0%a6%ac%e0%a6%9a%e0%a6%a4%e0%a6%b9%e0%a6%9f%e0%a6%8f%e0%a6%b0-%e0%a7%87%e0%a7%8d%e0%a7%87%e0%a6%95%e0%a6%9c%e0%a6%a4%e0%a6%ac%e0%a6%acস্টাফ রিপোর্টার, সময় সংবাদ বিডি- ঢাকা:যান্ত্রিক জীবনের কর্মতৎপরতা থেকে বেরিয়ে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের লীলাভূমি বান্দরবান, রাঙামাটি ও খাগড়াছড়ি জেলায় ভিড় জমাচ্ছেন ভ্রমণপিঁপাসু মানুষেরা। প্রকৃতি যেন সবটুকু উজাড় করে দিয়ে পেখম মেলে বসে আছে সৌন্দর্য বিকাশে।
রাঙামাটি আবাসিক হোটেল সমিতির যুগ্ম সম্পাদক নেচার আহমেদ বলেন, রাঙামাটিতে ৪২টি আবাসিক হোটেল, রিসোর্ট, গেস্টহাউস রয়েছে। এ ছাড়া সরকারি বেশ কয়েকটি রেস্টহাউজ আছে। সবগুলোতে ধারণক্ষমতা সাড়ে ৩ হাজারের মতো। ১৬ ডিসেম্বর থেকে ২৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত অধিকাংশই বুকিং রয়েছে।

রেস্টুরেন্ট মালিক সমিতির সভাপতি গিয়াস উদ্দিন বলেন, পর্যটকের ওপর এখানকার রেস্টুরেন্টগুলোও অনেকটা নির্ভরশীল।পর্যটকের আগমন বৃদ্ধি পাওয়ায় রেস্টুরেন্টগুলোতে বেচা-বিক্রি বেড়েছে। পর্যটন শিল্পের সঙ্গে জড়িত সব ধরনের ব্যবসা চাঙ্গা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ছোট্ট বাড় ব্যবসায়ীরা খুশি।

বান্দরবানের জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক বলেন, পাহাড়ের সম্ভাবনায় শিল্প হচ্ছে পর্যটন। এখানকার অর্থনীতির সঙ্গে পর্যটন শিল্প সম্পৃক্ত রয়েছে। পর্যটকনির্ভর ব্যবসা-বাণিজ্য পাহাড়ে সম্প্রসারিত হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

রাঙ্গামাটি জেলার পুলিশ সুপার সৈয়দ তরিকুল হাসান বলেন, পাবর্ত্য অঞ্চলে তুলনামুলক পর্যটকের আগমন বহুগুণে বেড়েছে। ১৬ ডিসেম্বর থেকে থার্টিফার্স্ট নাইট পর্যন্ত লক্ষাধিক মানুষের আগমন ঘটবে এসব এলাকায়।

অপরূপ সৌন্দর্যের লীলাভূমি পার্বত্য জেলাগুলোর পাহাড় ও ঝর্না। এ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য দেখতে প্রতিবছর ভিড় জমান হাজারও মানুষ। তবে ডিসেম্বর ও জানুয়ারিতে পর্যটকদের আনাগোনা বাড়ে। সেইসঙ্গে এ সময় শীতের হিমেল পরশে বাড়ে পাহাড়ের সজীবতা। ফলে প্রাকৃতির সাজঘর পাহাড়ে বাড়ছে মানুষের ভিড়।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here