মানি তো মানি না!!

0
57

সময় সংবাদ বিডি

ঢাকাঃ আল্লাহ্‌ বলেনঃ হে মুসলমানগণ, তোমরা কি আশা কর যে, তারা তোমাদের কথায় ঈমান আনবে? তাদের মধ্যে একদল ছিল, যারা আল্লাহর বাণী শ্রবণ করত; অতঃপর বুঝে-শুনে তা পরিবর্তন করে দিত এবং তারা তা অবগত ছিল।[সূরা বাক্বারাহঃ ৭৫]

আমাদের সমাজে আবেগি মুসলিমের অভাব নাই।। নামায, রোজা, হজ্জ কোন কিছু বাদ নাই কিন্তু সুধ, ঘুষ মানুষের হক্ব মেরে খাওয়াতে থেকে বেখবর। তারা এটা জানে খারাপ কিন্তু তারা এই সব বিষয় চক্ষু আড়াল করে রাখে।
.
আল্লাহ্‌ বলেনঃ তবে কি তোমরা গ্রন্থের কিয়দংশ বিশ্বাস কর এবং কিয়দংশ অবিশ্বাস কর? যারা এরূপ করে পার্থিব জীবনে দূগর্তি ছাড়া তাদের আর কোনই পথ নেই। কিয়ামতের দিন তাদের কঠোরতম শাস্তির দিকে পৌঁছে দেয়া হবে। আল্লাহ তোমাদের কাজ-কর্ম সম্পর্কে বে-খবর নন।[সূরা বাক্বারাহঃ ৮৫]
.
আমাদের সমাজে এক শ্রেনীর মানুষ আছে যাদের মধ্যে নারীরা নামায রোজা সব করে কিন্তু বাহিরে বেপর্দা ঘুরাঘুরি করে। ননমহরম পুরুষদের সাথে হাশি ঠাট্টা উঠা বসা করে।এদের মধ্যে অনেকে মাথায় পট্টি পরে নিজেকে হিজাবী দাবী করে অথচ হাতের নখে নেইল-পলিশ , ঠোটে লিপিস্টিক, চেহারায় ভারী মেক-আপ, গাঁয়ে অলংকার,সারা শরীরে পারফিউম।তারা নিজেদের হিজাবী দাবী করে থাকে। আফসস তাদের জন্য তারা হিজবের অর্থ বুঝে নাই।চিন্তা করুন আপু আপনার এই কথিত হিজাব কার জন্য করছেন (?) আল্লাহকে সন্তুষ্ট করার জন্য নাকি মানুষকে আকৃষ্ট করে শয়তানকে খুশি করছেন (?)

আবার পুরুষদের মধ্যে নামায রোজা হজ্জ সব করে কিন্তু মুখে দাঁড়ি নাই,টাখনুর নিচে প্যান্ট ঝুলিয়ে পরে,চাকুরিতে ঘুষ খায়,সিগারেট ফুঁকে মাঝে মাঝে পাগলা পানিও চলে বন্ধু মহলে।আবার অনেকে প্রকাশ্যে এবং গোপনে প্রেমলীলায় আক্রান্ত। এরাও কিন্তু ইসলামকে হাশি তামাশা বানিয়ে রেখেছে।আপনি চিন্তা করেন ভাই, আপনার এই ফাসেকি করে কাহাকে সন্তুষ্ট করছেন (?) আল্লাহ্‌ কি সন্তুষ্ট হচ্ছে নাকি শয়তান মজাই মজা ড্যান্স করছে (?)
.
আল্লাহ্‌ বলেনঃ যে কেউ আল্লাহকে ছেড়ে শয়তানকে বন্ধুরূপে গ্রহণ করে,সে প্রকাশ্য ক্ষতির মাঝে নিমজ্জিত হবে।[ সূরা আন নিসাঃ ১১৯]
.
আল্লাহ্‌ আমাদের কুরআ’ন মেনে চলার তৌফিক দান করুন। আমাদের পূর্বের হারাম কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা করুন। আমীন

লেখক- আবু লাইবাহ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here