মুন্সীগঞ্জে শুরু হয়েছে দ্বিতীয় বিভাগ ক্রিকেট প্রতিযোগিতা

0
209

ক্রিকেট_ব্যাট_এবং_বল

মোঃ রুবেল ইসলাম,(মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি

মুন্সীগঞ্জ: অবশেষে দীর্ঘ কয়েক বছরের প্রতীক্ষার অবসান ঘটছে। আজ ১১ মে মুন্সীগঞ্জ  জেলা স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় বিভাগ ক্রিকেট বাছাই প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। এর মাধ্যমে ক্রিকেটপ্রেমী সংগঠকদের দীর্ঘ কয়েক বছরের প্রত্যাশা পূরণ হয়েছে। এত বছর প্রিমিয়ার ডিভিশন আর প্রথম বিভাগ ক্রিকেট লীগ হতো। যাতে নির্ধারিত কয়েকটি ক্লাব অংশ নিত। নতুন  কোনো ক্লাব বা একাডেমীর খেলার সুযোগ ছিল না।

দ্বিতীয় বিভাগ বাছাই প্রতিযোগিতার ফলে দ্বিতীয় বিভাগ ক্রিকেট লীগ চালুর সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। ক্রীড়া সংস্থা’র সিদ্ধান্ত মোতাবেক বাছাই পর্বের শীর্ষ ৬টি ক্লাব দ্বিতীয় বিভাগে উত্তীর্ণ হবে। পরে তাদের নিয়ে দ্বিতীয় বিভাগ ক্রিকেট লীগ শুরু হবে।  দ্বিতীয় বিভাগ ক্রিকেট বাছাই পর্বে মোট ৭টি দল অংশ নিচ্ছে।

দলগুলো হলো মুন্সীগঞ্জ ক্রিকেট একাডেমী,এ্যামেচার ক্রীড়া একাডেমী,লিজেন্ড অব মুন্সীগঞ্জ, স্বপ্ননীড় ক্রীড়া একাডেমী,নবযাত্রী ক্লাব,গ্রীণ ওয়েল ফেয়ার সেন্টার ও মানিকপুর বিজয় ক্লাব। ১১ মে উদ্বোধনী খেলায় অংশ নিবে মুন্সীগঞ্জ ক্রিকেট একাডেমী বনাম লিজেন্ড অব মুন্সীগঞ্জ। লীগ পদ্ধতির এ খেলা আগামী ১৬ জুন পর্যন্ত চলবে।

এ বিষয়ে মুন্সীগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থা’র সাধারণ সম্পাদক ও দ্বিতীয় বিভাগ ক্রিকেট প্রতিযোগিতার আহ্বায়ক নজরুল ইসলাম জানান,মুন্সীগঞ্জ ক্রিকেট একাডেমীর সভাপতি মু.আবুসাঈদ সোহানের দীর্ঘদিনের অব্যাহত আন্দোলন সংগ্রামের ফসল এই দ্বিতীয় বিভাগ বাছাই প্রতিযোগিতা। তিনি দীর্ঘ ৮ বছর ধরে দ্বিতীয় বিভাগ চালুর ব্যাপারে বিভিন্ন দফতরে দৌড়ঝাপ করেছে। বিসিবি থেকে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় বিভিন্ন চিঠি চালাচালি করেছে। একাডেমীর কর্মকতা ও খেলোয়াড়দের দাবীর যৌক্তিকতা বিবেচনা করে জেলাবাসীর দীর্ঘদিনের আশা-আকাঙ্খার কথা ভেবে জেলা প্রশাসক সাইফুল হাসান বাদল এ উদ্যোগ নেন।

তার নির্দেশে আমরা জেলা ক্রীড়া সংস্থা এ খেলার আয়োজন করি।  এ ব্যাপারে মুন্সীগঞ্জ ক্রিকেট একাডেমী সভাপতি অ্যাডভোকেট মু.আবুসাঈদ সোহান বলেন, আমাদের দীর্ঘ ৮ বছরের আন্দোলন সংগ্রাম সফল হয়েছে। দ্বিতীয় বিভাগ বাছাই ক্রিকেট প্রতিযোগিতার মাধ্যমে নতুন দ্বার উন্মোচিত হলো। ক্রিকেট লীগে খেলার সুযোগ করে দেয়ার জন্য জেলা প্রশাসক সাইফুল হাসান বাদলের কাছে আমরা কৃতজ্ঞ।

পাশাপাশি জেলা ক্রীড়া সংস্থা’র সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলামের সদিচ্ছা আর যুগ্ম সম্পাদক আয়নাল হক স্বপনের আন্তরিক প্রচেষ্টার কারণেই এ উদ্যোগ সম্ভব হয়েছে আমরা মনে করি। তবে, প্রতিবছর এ পর্ব চালু থাকলে নতুন নতুন ক্লাব খেলার সুযোগ পাবে এবং ক্রিকেট খেলোয়াড় তৈরীতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বাছাই প্রতিযোগিতা।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here