“শনিবার বিকেল” ছবি নিষিদ্ধ ঘোষনা করা হয়েছে

0
86

সময় সংবাদ বিডি-

ঢাকাঃ চলচিত্রটিতে পরিচালক ফারুকী, প্রধান চরিত্রে থাকা জাহিদ হাসানের চরিত্রটাকে একজন মুসলিম যে উত্তম বৈশিষ্টের অধিকারী তা ফুঁটিয়ে তোলার চেষ্টা করেছিলো যেটা দেখে হয়তো অনেকে বুঝতে সক্ষম হবে, মুসলিম কখনো সন্ত্রাসী জঙ্গি হয় না, মুসলিম কখনো কোন সংগঠনের সাথে জড়িত হয়ে আল্লাহু আকবার বলে তাকবির দিয়ে দেশের জান-মালের ক্ষতি করে জিহাদ বলে চালিয়ে দিতে পারে না।

অথচ শুধু মাত্র দাঁড়ি দেখেই সামাজিক গনমাধ্যম গুলোতে, বিশেষ করে ফেসবুকে,ধারনা করেই গালি-গালাজ করে ঝড় তোলা হয়েছিলো। গল্পের মূল চরিত্রে থাকা জাহিদ হাসান নাকি সাদা-পাঁকা দাঁড়ি নিয়ে,হলি আর্টিজানে হামলা করা ২০/২২ বছরের একজন তরুন সন্ত্রাসী জঙ্গি চরিত্রে অভিনয় করছে (?) কি হাস্যকর কমন সেন্স !! তবে তাদের এই নেগেটিভ প্রচার প্রচারনার কারনে চলচিত্র টি সেরকম ভাবে পরিচিতি লাভ করেছে, সেটা কতটুকু ভালো বা খারাপ হয়েছে আল্লাহ্‌ ভাল জানেন…… অবশ্যই আল্লাহ উত্তম পরিকল্পনা কারী। যারা শুধু ধারনা করেই এমন প্রচার প্রশার করে গালি-গালাজ করে জুলুম করেছেন,তাদের উচিৎ আল্লাহ’র নিকট তওবাহ করা আর কারো প্রতি জুলুম হয়ে থাকার ভয়ে,যাকে গালি দিয়েছে সে ব্যাক্তির নিকট ক্ষমা চাওয়া।

Think_Positive !! চলচিত্রটিতে মূল চরিত্রে অভিনয় করে জাহিদ হাসানের যদি উপলব্ধি এসে যায়, সে বাস্তব জীবনে একজন মুমিন মুসলিম হয়ে নিজ জীবনে ইসলাম বাস্তবায়ন করবে “ইন’শা আল্লাহ্‌”।সেটা অবশ্যই খারাপ হবে না !! আল্লাহ্‌ কাহাকে কোন উপয় হেদায়াত দান করবেন এটা আল্লাহ ছাড়া কেউ বলতে পারবে না।।

বিঃদ্রঃ ছবি প্রদর্শনী শেষে সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়, ‘শনিবার বিকেল’ মুক্তি পেলে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হবে।। সেজন্য সেন্সর ছাড়পত্র স্থগিত করাসহ ছবিটি বাংলাদেশে মুক্তি না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।। যদিও পরিচালক মোস্তফা সোরোয়ার ফারুকীর দাবী চলচিত্রটি গুলশান হলি আর্টিজানে ঘটে যাওয়া হামলার ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত নয়। তাবে কি শুধু জাহিদ হাসানের চরিত্র দ্বারা একজন মুসলিমকে উত্তম চরিত্রের চিত্রিত করার কারনে,এই মুভিটা মুক্তি পাওয়ার ক্ষেত্রে বাঁধার শিকার হতে হলো ??

তবে হুজুগে বাঙ্গালী ভাইদের জানা জরুরী যে
গালি-গালাজ না করে জাহিদ হাসানকে আল্লাহ্‌ যেন হেদায়াত দান করেন,এই দূয়া করুন। কেউ হেদায়াত পেলে আমাদের কোন ক্ষতি হবে না,লাভ ছাড়া।

লেখক – আবু লাইবাহ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here