শান্তিচুক্তির সিংহভাগ বাস্তবায়ন হয়েছে:প্রধানমন্ত্রী

0
12

স্টাফ রিপোর্টার,সময় সংবাদ.কম ঢাকা:পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির সিংহভাগ বাস্তবায়ন হয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রধান বিরোধের ক্ষেত্র ভূমি বিরোধেরও সমাধান হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘পার্বত্য শান্তিচুক্তি আমরা করেছি। সেই চুক্তি বাস্তবায়নের কাজও আমরা করে যাচ্ছি।’ পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড পরিচালিত দীর্ঘমেয়াদি ‘সমন্বিত সমাজ উন্নয়ন প্রকল্পে’র (তৃতীয় পর্যায়) অধীন শিশুদের প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ‘পাড়া কেন্দ্রের’ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে বক্তৃতাকালে প্রধানমন্ত্রী এই কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘চাকমা, মারমা ত্রিপুরা ভাষায় যে অক্ষর আছে, আমরা সেই অক্ষরে তাদের নিজস্ব ভাষায় বই ছাপিয়ে দিয়েছি। পাহাড়ে শিক্ষাকে আমরা সর্বাধিক গুরুত্ব দিচ্ছি।’

ঢাকার বেইলি রোডে পাবর্ত্য এলাকার মানুষদের জন্য কমপ্লেক্স তৈরির কাজ শুরু হচ্ছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সেখানে তাদের জন্য প্রশাসনিক ভবন ডরমেটরিসহ সব করা হবে। ঢাকায় কাজে আসলে সেখানে পার্বত্য এলাকার লোকজন স্বল্পখরচে থাকতে পারবেন। পার্বত্য চট্টগ্রামে যেমন ঘরবাড়ি হয় তেমন দৃষ্টিনন্দন হবে এই কমপ্লেক্স।’

পাহাড়িদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘পার্বত্য অঞ্চলে যেন মাদক উৎপাদন না হয়। পপির বদলে সেখানে পাহাড়ি ফলের চাষ করুন।’ এসময় প্রধানমন্ত্রী পার্বত্য এলাকার উন্নয়নে যেসব উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে সেসব বিষয়ে জানান।

পাড়া কেন্দ্র তৈরি করার ফলে যেসব মা ও শিশুরা উপকৃত হয়েছেন তাদের বক্তব্য শোনেন প্রধানমন্ত্রী।

এ সময় পার্বত্য এলাকার উন্নয়নে সরকারের নানা উদ্যোগ বর্ণনা করে বলেন, সরকার কোনো একটি অঞ্চলকে বঞ্চিত করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবে না। আর সংঘাতের জন্য যেহেতু পার্বত্য অঞ্চল ২০ বছর পিছিয়ে ছিল তাই এই অঞ্চলের জন্য সরকার বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছে। ১৭টি প্রকল্পে সেখানে আলাদাভাবে ১০ হাজার কোটি টাকার উন্নয়নের কাজ চলছে। এর বাইরে সব মন্ত্রণালয়ের কাজও চলছে।

এর মধ্যে ১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর করা পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির প্রসঙ্গও টানেন প্রধানমন্ত্রী। এই চুক্তি পুরোপুরি বাস্তবায়ন হয়নি অভিযোগ করে সরকারের সঙ্গে চুক্তিতে সই করা পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি অসহযোগ আন্দোলনের ‍হুমকি দিয়েছে। আবার নতুন করে অস্ত্র ধরার হুমকিও এসেছে।

উল্লেখ্য রাঙামাটি জেলার মিতিঙ্গাছড়িতে চার হাজার তম পাড়া কেন্দ্রের উদ্বোধন করা হলো। সেখানে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে উপস্থিত ছিলেন সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার, স্থানীয় এমপি উষাতন তালুকদার, এমপি জে এফ আনোয়ার চিনুসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here