শ্যামল কান্তিকে লাঞ্ছনা

0
186

ততততততততততততততস্টাফ রিপোর্টার, সময় সংবাদ বিডি-

ঢাকা: নারায়ণগঞ্জের পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্ত প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করা হয়েছে।

রবিবার বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি জেবিএম হাসানের হাইকোর্ট বেঞ্চে প্রতিবেদনটি উপস্থাপন করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু।

৬৫ পৃষ্ঠার ওই প্রতিবেদনটি গত বৃহস্পতিবার অ্যাটর্নি কার্যালয়ে জমা দেন ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম শেখ হাফিজুর রহমান। রিট আবেদনের পক্ষে ছিলেন সাবেক অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল এম কে রহমান।

অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন সাজু বলেন,তদন্ত প্রতিবেদনে ছয়টি সিদ্ধান্ত দেয়া হয়েছে। ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম বিভিন্ন ধাপে সাক্ষ্যগ্রহণ করেছেন। ভিডিও ফুটেজ, অডিও রেকর্ডসহ বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করেছেন। তিনি জানান, নারায়ণগঞ্জের পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চ বিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট ছাত্র রিফাত ও তার মা, জেলা প্রশাসন, পুলিশ ও মসজিদের ইমামসহ ২৭ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়েছে।

গত বছরের ১৪ মে ইসলাম ধর্ম অবমাননার গুজব ছড়িয়ে নারায়ণগঞ্জের পিয়ার সাত্তার লতিফ হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে বিদ্যালয়ের ভেতরে অবরুদ্ধ করে মারধর করা হয়। পরে স্থানীয় এমপি সেলিম ওসমানের উপস্থিতিতে তাকে কান ধরে ওঠ-বস করানো হয়। এরপর তাকে ওই স্কুল থেকে বহিষ্কার করা হয়।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here