সংশোধন শিরোনামে ৫৭টি স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র

0
27

১স্টাফ রিপোর্টার,সময় সংবাদ.কম–

ঢাকা: “সংশোধন” এটি একটি জনপ্রিয় চলচ্চিত্রের মৌলিক নাম। এই সংশোধন শিরোনামে মধ্যে খন্ড খন্ড ৫৭টি নামের স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র রয়েছে। সংশোধন লিখে বাটন চাপলেই যেন স্কিনের মাঝে ভেসে আসে রাসেল মিয়া ও তার সহশিল্পীরা।

খন্ড খন্ড ৫৭টি নামের মধ্যে আলোচিত স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রের মধ্যে উন্নতম চলচ্চিত্র গুলো সকল শ্রেণীর শ্রোতাদের দৃষ্টি নন্দন হবে আশা করা যায়।

সেগুল হলো, নিম্ন আয়ের শ্রমজীবি মানুষের সাথে অকারনে খারাপ আচরন, পরকীয়া, এতিমের ঈদ, ইভটিজিং, বাল্য বিবাহ, পথ শিশুদের জীবনী, নারী নির্যাতন, পুরুষ নির্যাতন, জুয়াড়ীর জীবন, অর্থ লোভের কুফল, সংসারের জটিলতা, যেীতুক, বিবাহ বিচ্ছেদ কারন, ব্যাচলর জীবনের বিড়ম্বনা, শিক্ষক, ছাত্র, মায়ের প্রতি সন্তানের অবিচার, ছবি ব্যবসা,ডাক্তার সেবা, মাদক, নামাজ, প্রবাসী জীবন, আইন, বিধবার জীবন, নকল সুন্দরের পরিনতি, পতিতার জীবন, নায্য বিচার, দালালী ও পোষাক নিয়ে আরো বহু ধারার চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন রাসেল মিয়া।

চলচ্চিত্র গুলোর মূল চরিত্রে তাঁর অভিনয়ের পাশা পাশি কাহিনী সংলাপ রচনা ও পরিচালনায় অনেক দক্ষতার পরিচয় দিয়েছেন। এই খন্ড খন্ড ৫৭টি বিষয়ের উপর নিজস্বতা রেখেই স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র নির্মানের উদ্যোগী হবার পেছনে তার যুক্তি শুধুই যে অন্ন, বস্ত্র দিয়ে অসহায় মানুয়ের পাশে দাঁড়ালেই যে মানুষ উপকৃত হবেন বিষয়টি তা কিন্তু নয়। ভিডিও চিত্রের মাধ্যেমেও নাকি মানুষের পাশে দাঁড়ানো সম্ভব বলে মনে রাসেল মিয়া। এমন ভাবেই তিনি সমাজ সেবায় এগিয়ে আসার অনেক তীব্র ইচ্ছা পোষন করেন।

২ব্রাক্ষনবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুর উপজেলার এই কৃতিত্বপূর্ণ ব্যক্তির জন্ম গ্রহণ করেন। ছোটবেলায় তাঁর চরম ঝোক ছিল মিডিয়া জগতে প্রবেশ করার কিন্তু তা ব্যস্ততায় পরিপূর্ণতা পায়নি। তিনি একনিষ্ঠ একজন মঞ্চকর্মী। সফলতার সঙ্গে দীর্ঘ দিন নাটক নিয়ে থাকার পাশাপাশি পরিপূর্ণ বয়সে এসেই চিন্তা করলেন ভিডিও চিত্রের মাধ্যমে সমাজে কিছু করা যায় কিনা।

তাই দক্ষতার আলোকেই অনেক গুরুত্ব পূর্ণ থিম নিয়ে নির্মিত করছেন স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। নির্মাণ কর্মসূচি আওতায় ব্যবহার হচ্ছে, মুক্তিযোদ্ধা পেইজ,জসিম উদ্দিন ফেনী বাংলাদেশ পেইজ, রেডিও স্বদেশ.নেট পেইজ, এ টি এন বাংলা পেইজ, জীবনে কি আছে আর তুমি ছাড়া পেইজ, রেডিও প্রবাসী পেইজ। এই গুলো পেইজ ছাড়াও আরোও অনেক গুলো পেইজ তিনিই তৈরি করে অনলাইনে বেশ সাড়া ফেলেছেন এবং লাইক, কমেন্টস, শেয়ার ও ভিউয়ারে এগিয়ে রয়েছে “সংশোধন” স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র। তথ্য এবং অনুসন্ধানের ভিত্তিতে এখন পর্যন্ত ভিউয়ারে এগিয়ে রয়েছে রাসেল মিয়ার স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র সংশোধন।

ইতিমধ্যে “সংশোধন” ৫৭টি পর্বের মধ্যেই অধিকাংশ পর্ব গুলো ভিউয়ারে কোটি ছাড়িয়ে গেছে। রাসেল মিয়া সকলের উদ্যেশে বলেছেন, এই নির্মিত পর্ব গুলি আগে দেখতে হবে তারপর যদি মনে হয় এই ‘সংশোধন’ স্বল্প দৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র গুলো সমাজ সেবার উদ্দেশে নূন্যতম শিক্ষা এবং আদর্শিক দিক খোঁজে পাওয়া যায় তাহলেই বাংলার মানুষ সচেতন হবে। সেটাই তাঁর সার্থকতা। তিনি জানালেন আরও অনেক কিছুর আয়োজন নিয়ে ‘সংশোধন’ চলচ্চিত্র নির্মাণে অতি শীঘ্রই আসছেন।এমন নির্দিষ্ট লক্ষ্যে সাম্প্রতিক বেশ কিছু কাজে ব্যস্ত আসছেন।

নজরুল ইসলাম তোফা, কলামিষ্ট

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here