সংসদে ক্ষমা চাইলেন ইনু

0
174

photo-1469464903স্টাফ রিপোর্টার, সময় সংবাদ বিডি- ঢাকাঃসংসদ সদস্যদের ‘চোর’ বলার পর অব্যাহত সমালোচনার মুখে সংসদ অধিবেশনে ক্ষমা চাইতে বাধ্য হলেন জাসদ সভাপতি তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

সোমবার সন্ধ্যার পর জাতীয় সংসদে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে সংসদ সদস্যরা ক্ষমার দাবি জানালে পরে তাদের চাপের মুখে নিজের বক্তব্যের জন্য তিনি ক্ষমা চান। সংসদে অধিবেশন চলাকালে এই ঘটনা ঘটে।

তখন তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমি মনে করি গণমাধ্যমে আমার বরাত দিয়ে যে বক্তব্য এসেছে, সেজন্য আমি ক্ষমা চাইছি, আমি আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি।

সোমবার সন্ধ্যায় জাতীয় সংসদের অধিবেশন চলাকালে পয়েন্ট অব অর্ডারে দাঁড়িয়ে এমপিরা ইনুর কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা দাবি করেন। তারা বলেন, মাননীয় তথ্যমন্ত্রী টিআর কাবিখা নিয়ে মন্তব্য করে সব সংসদ সদস্যকে অপমান করেছেন। এজন্য সংসদে দাঁড়িয়ে তাকে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইতে হবে। একই সঙ্গে তথ্যমন্ত্রীর নির্বাচনি এলাকায় টিআর কাবিখার আওতায় কী কী উন্নয়নমূলক কাজ হয়েছে তা তদন্ত করে দেখতে হবে।

তথ্যমন্ত্রী এসময় সংসদে উপস্থিত ছিলেন। কার্যবিধির ৩০০ বিধিতে বিবৃতি দেওয়ার সময় নিজের বক্তব্যের জন্য দুঃখ প্রকাশ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমার বক্তব্যের ব্যাপারে গণমাধ্যমে বিবৃতি দিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছি। আমি সব জনপ্রতিনিধি ও এমপিদের কাছে আমার বক্তব্যের জন্য আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করছি এবং আমার বক্তব্য প্রত্যাহার করে নিচ্ছি। জঙ্গি দমনের একজন যোদ্ধা হিসেবে সবাই আমার দুঃখপ্রকাশ গ্রহণ করবেন বলে আশা করছি।

এ সময় সংসদে ব্যাপক হইচই করেন এমপিরা। পরে চাপের মুখে আবার ফ্লোর নিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, আমার বক্তব্য অনভিপ্রেত। এমপিদের দাবির মুখে আমি ক্ষমা চাচ্ছি।

গত রোববার পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের এক অনুষ্ঠানে ‘দরিদ্রদের জন্য বরাদ্দ টিআর-কাবিখার অর্ধেক এমপিদের পকেটে যায়’ এমন মন্তব্য করেছিলেন তথ্যমন্ত্রী ইনু। এর জন্য সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে উপস্থিত সদস্যদের কাছে লিখিত ক্ষমা চান তথ্যমন্ত্রী। সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকের শুরুতে তথ্যমন্ত্রী ক্ষমা চেয়ে লিখিত বক্তব্য একটি খামে ভরে সব সদস্যদের আসনের সামনে রাখেন। পরে মন্ত্রিসভার বৈঠকে নির্ধারিত এজেন্ডার বাইরে এ বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন উপস্থিত সবাই।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here