৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন সংঘাতমুক্ত নিরাপদ ও আনন্দমুখর করতে ডিএমপি’র পক্ষ থেকে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে

0
192

 

সময় সংবাদ বিডি-

ঢাকাঃ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সংঘাতমুক্ত, নিরাপদ এবং আনন্দমুখর করার জন্য ইতোমধ্যে ডিএমপি’র পক্ষ থেকে একটি সুসমন্বিত, সুদৃঢ় নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হয়েছে।

গত (২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮) বিকাল ৪.০০ টায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটকেন্দ্র পরিদর্শনকালে উইলস লিটন ফ্লাওয়ার স্কুল এন্ড কলেজে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এ কথা বলেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়া বিপিএম (বার), পিপিএম।

কমিশনার বলেন, ঢাকা মহানগরীতে মোট ২১১৩টি ভোট কেন্দ্র রয়েছে। প্রত্যেকটি কেন্দ্রে পর্যাপ্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ডিউটি করবে। এর বাইরেও ৪/৫টি কেন্দ্রের জন্য ১টি করে মোবাইল টিম থাকবে। এছাড়াও থানা ও ডিভিশনাল পর্যায়ে স্ট্রাইকিং ফোর্স থাকবে এবং ঢাকা শহরে ৪টি কন্ট্রোল রুম থাকবে। এখান থেকে আমরা পুরো নিরাপত্তা ব্যবস্থা সমন্বিত করব। যে ১৪টি কেন্দ্র থেকে ব্যালট পেপার জমা এবং গ্রহণ করা হবে সেখানে রয়েছে আমাদের পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা

তিনি বলেন, আমরা সকল সংস্থা মিলে এই নির্বাচন যাতে কোন ধরনের সংঘাত না হয়, ভোটারদের যাতে কেউ ভয়ভীতি দেখাতে না পারে সেজন্য সবরকম প্রস্তুতি আমরা নিয়েছি। অগ্রিম তথ্য সংগ্রহের জন্য আমাদের গোয়েন্দারা তৎপর রয়েছে। অনলাইনে গুজব প্রতিরোধে আমাদের সাইবার টিম কাজ করছে। যদি কোন ধরনের প্রতিবন্ধকতা থাকে তাহলে আমরা তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নিব। নির্বাচন সংশ্লিষ্টদের নিরাপত্তার বিষয়ে কমিশনার বলেন, নির্বাচনে প্রতিটি প্রার্থী ও তাদের এজেন্টদের নিরাপত্তা দিতে আমরা ব্যবস্থা নিয়েছি। ভোটাররা যাতে নিরাপদে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারে সেজন্য নগরজুড়ে আমাদের কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা রয়েছে।

সম্মানিত নগরবাসীকে সহযোগিতার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন শান্তিপূর্ণ, সুষ্ঠুভাবে ও উৎসবমুখর পরিবেশে অনুষ্ঠিত করার যে আয়োজন আমরা করেছি সেখাানে আমাদের সহযোগিতা করার জন্য বিনীতভাবে অনুরোধ রাখব।

ভোটারদের আশ্বস্ত করে কমিশনার বলেন, কোন ভোটারকে কেউ কোন প্রকার ভয়ভীতি প্রদর্শন করলে সে আমাদের কন্ট্রোলরুম, সংশ্লিষ্ট ডিসি, নির্বাচন কমিশন অফিস ও প্রিজাইডিং অফিসারকে জানাতে পারবেন। এছাড়াও ৯৯৯ এ ফোন করে অভিযোগ জানাতে পারবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে কমিশনার বলেন-২৯ ডিসেম্বর রাত ১২টা থেকে ৩০ ডিসেম্বর রাত ১২টা পর্যন্ত বিভিন্ন ধরণের যানবাহনের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে নির্বাচন কমিশন। তবে যারা ট্রেন, লঞ্চ ও বিমানে ভ্রমন করবে তাদের বৈধ টিকেট ও পাসপোর্ট থাকলে তাদের গন্তব্যে পৌছানোর ব্যবস্থা করা হবে । এ বিষয়ে ডিএমপি’র ট্রাফিক বিভাগকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া আছে। প্রার্থী ব্যতীত অন্য কেউ লাইসেন্সকৃত অস্ত্র বহন করতে পারবে না।

সৃএে-ডিএমপি নিউজ। 

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here