৫৩ তম বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে ফলোআপ সভা

0
22

Gazipur 07 Jan 18 Eztema Meeting Picসানাউল্লাহ স্বপন,সময় সংবাদ.কম–

ঢাকা: ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার প্রস্তুতি বিষয়ক ফলোআপ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ রবিবার সকালে টঙ্গী সিটি করপোরেশন জোন-১ অফিস প্রাঙ্গনে গাজীপুর জেলা প্রশাসন ও  গাজীপুর সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় গাজীপুরের

গাজীপুরের সুযোগ্য পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ বলেন, ইজতেমা উপলক্ষে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ৮স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। গত ইজতেমায় সাড়ে পাঁচ হাজার পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করেছিল। এবার ইজতেমায় ৭হাজার পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করবে। এছাড়াও সাদা পোশাকে পুলিশ সদস্যের সংখ্যা বৃদ্ধি করা হয়েছে। ইজতেমা ময়দান ও এর আশপাশের এলাকায় ৪১টি সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে।

ঢাকা ট্রাফিক পুলিশ বিভাগের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ইজতেমা উপলক্ষে ১৮০০’শ ট্রাফিক পুলিশ সদস্য দায়িত্ব পালন করবেন।

সভায় গাজীপুর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী ডিএকেএম নাহীন রেজা বলেন, ইজতেমা উপলক্ষে টঙ্গী স্টেশনরোড ও টঙ্গী বাজার বাসস্ট্যান্ড এলাকার ফুটওভারব্রিজ দুটি মেরামত করে রাতে বাতির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

জিসিসির প্রধান নির্বাহী কেএম রাহাতুল ইসলাম বলেন, বিশ্ব ইজতেমার সার্বিক কার্যক্রম মনিটরিং করার জন্য ৫টি কন্ট্রোলরুম স্থাপন করা হয়েছে। ইস্তেমায় আগত দেশী-বিদেশী মেহমানদের অভিনন্দন ও স্বাগত জানিয়ে ১৩টি তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে। ইজতেমা ময়দানের সার্বিক নিরাপত্তা মনিটরিং কাজে পুলিশের জন্য ১৫টি ও র‌্যাবের জন্য ৯টি ওয়াচ টাওয়ার স্থাপন করা হয়েছে। ইজতেমায় নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত সদস্যদের জন্য ১৫৪টি অস্থায়ী টয়লেট নির্মাণ করা হয়েছে। মুসল্লীদের ওযু-গোসল,পয়ঃনিষ্কাশন ও সুপেয় পানি সরবরাহের জন্য ইজতেমা ময়দানে ১৩টি গভীর নলকূপ দ্বারা ১৮.৫০কিঃমিঃ পাইপ লাইনের মাধ্যমে প্রতিদিন ৩ কোটি ৫৪ লাখ গ্যালন সুপেয় পানির সরবরাহ নিশ্চিত করা হয়েছে। ইজতেমা আয়োজক কমিটির চাহিদা মোতাবেক ১০০ ড্রাম বিøচিং পাউডার সরবরাহ করা হয়েছে। স্থাপন করা হয়েছে। ইজতেমায় আগত বিদেশী মেহমানদের রান্না কাজের জন্য ১৩৬ টি গ্যাসের চুলা স্থাপন করা হয়েছে।

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে, ইজতেমা ময়দানে আগত মুসল্লীরা একসাথে ৯ হাজার শৌচাগার ব্যবহার করতে পারবেন। মুসল্লীদের জন্য ৫ হাজার ওযুখানা প্রস্তুত রাখা হয়েছে। বিদেশী মেহমানদেন জন্য ২৯০টি গোসলখানা ও গরমপানির ব্যবস্থা করা হয়েছে। ইজতেমা ময়দানের জন্য ১০জন জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলীকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

সভায় সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় সাংসদ জাহিদ আহসান রাসেল এবং উক্ত সভায় গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড:দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর ও গাজীপুরের সুযোগ্য পুলিশ সুপার মো:হারুন অর রশিদ সহ এলজিআরডি, সড়ক ও জনপথ, ঢাকা ওয়াসা, নৌ পরিবহন, জেলা সিভিল সার্জন, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগ, সেনাবাহিনী, ফায়ার ও সিভিল ডিফেন্স সার্ভিস, পল্লী বিদ্যুৎ পুলিশ ও আনসার ভিডিপির উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উত্তর দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here