৭ম কংগ্রেসে উত্তর যুবলীগের শীর্ষ দুই পদে আলোচনায় যারা!

0
302

ডেস্ক নিউজ, সময় সংবাদ বিডি-

ঢাকা: ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগের সহযোগী সংগঠন আওয়ামী যুবলীগের ৭ম কংগ্রেস আগামী ২৩ নভেম্বর তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। ওই দিন অনুষ্ঠিত কংগ্রেসে বর্তমান আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির পাশাপাশি ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের নতুন কমিটি ঘোষণা করার সম্ভাবনা রয়েছে।

আওয়ামী যুবলীগের ৭ম কংগ্রেসকে সামনে রেখে এরইমধ্যে গত রোববার (২০ অক্টোবর) গণভবনে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সঙ্গে দলীয় শীর্ষ নেতাদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে সংগঠনটির প্রেসিডিয়াম সদস্য চয়ন ইসলামকে প্রস্তুত কমিটির আহ্বায়ক ও হারুনুর রশীদকে সদস্যসচিব নির্বাচিত করা হয়েছে। এছাড়াও উক্ত বৈঠকে যুবলীগ নেতাদের সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৫৫ বছর নির্ধারণ করে দিয়েছেন আওয়ামীলীগের সভাপতি।

যুবলীগের ৭ম কংগ্রেসকে সামনে রেখে মাদক, দুর্নীতি, চাঁদাবাজি ও অনুপ্রবেশকারীসহ যে কোনো অপরাধের সঙ্গে সম্পৃক্তরা যুবলীগের কংগ্রেসে স্থান পাবেনা বলে স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে দিয়েছেন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক চয়ন ইসলাম।

 

এদিকে, যুবলীগের আগামী কংগ্রেসে কেন্দ্রীয় শীর্ষ দুই পদের পাশাপাশি ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের শীর্ষ দুই পদে স্থান পেতে নেতাকর্মীদের মাঝে তোড়জোড় শুরু হয়েছে। তবে এই তোড়জোড় দেখা গেছে রাজনীতির মাঠে ক্লিন ইমেজে থাকা সেসকল নেতাকর্মীর মাঝে। যারা ইতিপূর্বে কোন অপরাধের সাথে সম্পৃক্ত ছিলেননা বা বর্তমানেও যাদের নামে কোন ধরনের অপরাধের সাথে সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগ নেই।

আর এমন ক্লিন ইমেজের নেতাকর্মীদেরকেই দলীয় শীর্ষ বিভিন্ন পদে আনা হবে বলে আওয়ামীলীগের হাইকমান্ড সূত্রে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

 

ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের শীর্ষ দুই পদে স্থান পেতে স্থানীয় নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দিপনা দেখা গেছে। বর্তমানে শীর্ষ এই দুই পদে দায়িত্বে রয়েছেন আলহাজ্ব মাইনুল হোসেন খাঁন নিখিল সভাপতি পদে ও সাধারণ সম্পাদক পদে ইসমাইল হোসেন। এই দুই নেতা কেন্দ্রীয় শীর্ষ দুই পদে স্থান পেতে ইতিমধ্যে অনেকটাই দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন।

 

উত্তর যুবলীগের শীর্ষ দুই পদে স্থান করে নিতে মাঠে নেমেছেন অনেকেই। তবে সাধারণ সম্পাদক পদে আলোচনায় যারা রয়েছেন তাদের মধ্যে অনেকটা এগিয়ে আছেন বাড্ডা থানা যুবলীগের বর্তমান আহবায়ক কায়সার মাহমুদ। স্থানীয় নেতাকর্মীদের মাঝে অনেকটাই ক্লিন ইমেজের নেতা হিসেবে পরিচিত তিনি। এছাড়াও তৃনমূল তরুন কর্মিদের আস্তাভাজন ও কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের কাছে ত্যাগী ও পরিশ্রমী যুবলীগ নেতা কায়সার মাহমুদ।

স্থানীয় নেতাকর্মী সূত্রে জানা গেছে, দলীয় সকল কর্মসূচি সফল করতে কায়সার মাহমুদ ব্যাপক পরিশ্রম করেন। যার আপ্রাণ চেষ্টায় ইতিপূর্বে প্রত্যেক কর্মসূচি সফল হয়েছে। এছাড়াও প্রত্যেক নির্বাচনে তিনি দলীয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেছেন।

 

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত ডিএনসিসি নির্বাচনে কায়সার মাহমুদ দলীয় প্রার্থীদের পক্ষে কাজ করে নির্বাচিত হয়েছেন।

এব্যাপারে ডিএনসিসির ২১ নং ওয়ার্ডের স্থানীয় নেতাকর্মীরা বলেন, ডিএনসিসি নির্বাচনে কায়সার মাহমুদ নৌকার পক্ষে ব্যাপক পরিশ্রম করে নির্বাচনি প্রচারনা চালিয়েছেন। সেক্ষেত্রে নৌকার বিজয়ে কায়সার মাহমুদের অবদান অপরিহার্য বলে তারা জানান।

 

এছাড়াও ৩৭ নং ওয়ার্ডের স্থানীয় নেতাকর্মীরা বলেন, ডিএনসিসি নির্বাচনে এই ওয়ার্ডে নৌকার পক্ষে নেতাকর্মীদের নিয়ে ঐক্যবোধ হয়ে কাজ করেছেন যুবলীগ কায়সার মাহমুদ।

স্থানীয়দের অনেকেই বলেন, কায়সার মাহমুদের কাছে আমরা এই ওয়ার্ডের কর্মিরা চির কৃতজ্ঞ। আগামি আওয়ামী যুবলীগের ৭ম কংগ্রেসে ঢাকা মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক পদে কায়সার মাহমুদকে আনা হলে যুবলীগের সুনাম অনেকটা ফিরে আসবে। সেক্ষেত্রে উক্ত পদে কায়সার মাহমুদ যোগ্য বলে তারা মনে করেন।

 

অপরদিকে ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের সভাপতি পদে লড়ছেন অনেকে। তাদের মধ্যে এগিয়ে আছেন, ১৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জাকির হোসেন বাবুল, উত্তর যুবলীগের বর্তমান সহসভাপতি আখতারুজ্জামান, উত্তরের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর রহমানসহ বেশ কয়েকজন।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here