করোনায় আতঙ্কে কেনাকাটার হিড়িকে বাজারে বেড়েছে চালের দাম

0


জসিম ভুঁইয়া,সময় সংবাদ বিডি -ঢাকা: প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস যাতে মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্য বাংলাদেশ সরকার জনসমাগম এড়িয়ে চলার নির্দেশ দিয়েছে। দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ৩১ মার্চ পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করেছে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানও তাদের কর্মীদের অফিসে না এসে ঘরে বসে কাজ করার নির্দেশনা দিয়েছেন,জনস্বার্থে।

এইদিকে করোনা আতঙ্কে শপিং মল ও দোকানপাট বন্ধ হয়ে যেতে পারে এমন আশঙ্কায় জনগণ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য ও অন্যান্য দ্রব্য বেশি পরিমাণে কিনে বাসায় মজুত করতে শুরু করেছে। এর ফলে দেখা গেছে,কাঁচাবাজারসহ সুপার শপগুলোতে পড়েছে কেনাকাটার হিড়িক।

এর পরিপ্রেক্ষিতে আজ শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর, সরজমিনে রাজধানীর মেরুল বাড্ডা ডিআইটি প্রজেক্ট, মধ্যপাড়া বাজার, রাজধানীর কারওয়ান বাজার,নতুন বাজার রামপুরা কাঁচা বাজার,খিলগাঁও বাজার, এবং বিভিন্ন সুপার’শপ ও কাঁচাবাজার গুলোতে ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। তবে এ সুযোগে বিক্রেতারা চালের দামও দিয়েছে কিছুটা বাড়িয়ে।

রাজধানীর মধ্যে বাড্ডা বাজারে, এসময় বাজার করতে আসা পারভীন নামে একজন ভদ্রমহিলার সঙ্গে আলাপ কালে নিতি জানান। করোনা ভাইরাসে প্রভাব কিছুটা বাংলাদেশের পড়েছে,তাই আমি ও আমার পরিবার নিয়ে খুব আতঙ্কে রয়েছি। যেহেতু এই ভাইরাস টি ছোঁয়াছুঁয়ির রোগ, তাই প্রয়োজন ছাড়া বাসা থেকে বের হচ্ছি না । এবং দকারের বাহিরে অতিরক্ত বাজার একারণে করছি,যাতে বারবার বাজার আসতে না হয় ।

তিনি আরও বলেন,কাঁচাবাজারে প্রতিটি পণ্যের দামই গত সপ্তাহের মতোই রয়েছে কিন্তু, কিছু অসাধু দোকানদার ও বিক্রেতারা অতিরিক্ত চাহিদা থাকার কারণে কিছুটা দাম বেশি নিচ্ছে। পাশাপাশি চালের দামেও কিছুটা বেড়েছে, গত সপ্তাহে প্রতিকেজি মিনিকেট ৫৩ টাকা করে কিনেছিলাম। কিন্তু আজ কেজিপ্রতি ২ টাকা বাড়ায় ৫৫ টাকা করে কিনতে হলো। মনে হচ্ছে দেখার কেউ নেই।

সম্প্রতি এই করোনা ভাইরাসের কারণে মানুষ বেশি বেশি কেনাকাটা করছে দেখে কি চালের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে!

এমন প্রশ্নে উওরে রাজধানীর রামপুরা বাজারে এক চাল বিক্রেতা বলেন,করোনার কারণে চালের দাম বাড়েনি। এ সময় স্বাভাবিকভাবেই চালের দাম বৃদ্ধি পায়। বর্তমানে পাইকারি বাজারে কেজিতে ৫০ পয়সা থেকে ১ টাকা পর্যন্ত চালের দাম বেড়েছে। এক থেকে দেড় মাস পর যখন নতুন ধান উঠবে,তখন চালের দাম কমে যাবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here