কেশরহাট পৌরসভা নির্বাচন: সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থীদের তোড়জোড় শুরু

0



ডেস্ক নিউজ, সময় সংবাদ বিডি-
রাজশাহীঃ মহামারী করোনা ভাইরাস শেষ কবে? এমন প্রশ্নের উত্তর এখনো অজানা থাকলেও এরই মধ্যে দেশের কয়েকটি জেলায় পৌরসভা নির্বাচনের সময় ঘনিয়ে আসছে। এর আগে গত ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর থেকে ২০১৬ সালের ১২ জানুয়ারি পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন পৌরসভার নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। আর নিয়মানুযায়ী এ বছরের ডিসেম্বর মাসে এসব পৌরসভার মেয়াদ শেষ হবার কথা রয়েছে।

সেক্ষেত্রে দেশে চলমান করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে এবং বড় কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে ইসি থেকে ঘোষিত পৌরসভাগুলোতে ডিসেম্বর ও জানুয়ারি মাসে নির্বাচন হবে বলে নির্বাচন কমিশন (ইসি) সুত্রে জানা গেছে।

ইসি সূত্রে, এ বছরের ডিসেম্বর মাসে রাজশাহী জেলার মেয়াদোত্তীর্ণ ১৩টি পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আর পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা হবে নির্বাচনের ৪০ থেকে ৪৫ আগে। আর এ বছরও দলীয় প্রতীকে পৌরসভা  নির্বাচন হবে বলে জানা গেছে।

রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলা কেশরহাট পৌরসভার নির্বাচনে ইতোমধ্যে সম্ভাব্য প্রার্থীরা তোড়জোড় শুরু করেছেন। সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থীরা করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলা করে ভোটারদের সাথে আলোচনা ও মতবিনিময় সভা করছেন।

আসন্ন কেশরহাট পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগ থেকে ৩ জন ও বিএনপি থেকে ৩ জন দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার জন্য জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। আওয়ামী লীগ থেকে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান পৌর মেয়র শহিদুজ্জামান শহিদ এবং অপর সম্ভাব্য প্রার্থী হলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও বর্তমান পৌর ১ নম্বর প্যানেল মেয়র রুস্তম আলী প্রামাণিক। এছাড়াও অপর একজন হচ্ছেন, কেশরহাট পৌর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী শাহিনুর রহমান শাহিন। দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশায় আওয়ামী লীগ থেকে সম্ভাব্য এ তিন প্রার্থীই কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় পর্যায়ের নেতাদের সাথে জোড় তদবির চালিয়ে যাচ্ছেন।

বিএনপির থেকে প্রচারণায় রয়েছেন পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর মেয়র আলাউদ্দিন আলো, পৌর যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক মশিউর রহমান, পৌর বিএনপির আহবায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য প্রভাষক খুশবর রহমান। তবে এদের মধ্যে সাবেক পৌর মেয়র আলাউদ্দীন আলো গত নির্বাচনে মাত্র ৯৯ ভোট পেয়ে জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েন। দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশায় বিএনপি থেকে সম্ভাব্য এ তিন প্রার্থীই দলের কেন্দ্রীয় পর্যায়ের নেতাদের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ করছেন এবং কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে যার যার অবস্থান তুলে ধরছেন।

এছাড়া আরো ২/১ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানা গেছে।

আওয়ামী লীগ থেকে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান পৌরসভার মেয়র শহিদুজ্জামান শহিদ পৌরসভায় ব্যাপক উন্নয়নের কাজ করেছেন দাবি করে বলেন, কেশরহাট পৌরসভাকে তৃতীয় শ্রেণি থেকে দ্বিতীয় শ্রেণিতে রূপান্তর করেছি। গত নির্বাচনের ইশতেহারের প্রায় আমি ৭০ শতাংশ কাজ করেছি। তিনি আরো বলেন, দল ও জনগণ যদি আবারো সুযোগ দেয় তবে আমি অসমাপ্ত কাজগুলো সম্পন্ন করবো ইনসা আল্লাহ।

এছাড়া আওয়ামী লীগ থেকে অপর সম্ভাব্য প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও পৌর প্যানেল মেয়র রুস্তম আলী প্রামাণিক মেয়র পদে নির্বাচনে মতামত ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, জাতি, ধর্ম ও বর্ণ নির্বিশেষে সকল শ্রেণির জনগণের প্রতি পূর্ণ আস্থা ও বিশ্বাস রয়েছে। কথায় নয় আমি কাজে বিশ্বাস করি এবং নির্বাচিত হলে আলোকিত কেশরহাট পৌরসভা প্রতিষ্ঠা করব। তিনি আরো বলেন, সকল ওয়ার্ডের জনসাধারণ আমাকে মেয়র পদে নির্বাচন করার জন্য আশ্বস্ত করেন এবং জনসাধারণের আন্তরিক ভালোবাসায় সব সময় তাদের পাশে থাকতে চাই।

এছাড়াও অপর একজন কেশরহাট পৌর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী শাহিনুর রহমান শাহিন পরিবর্তনের অঙ্গীকার নিয়ে মাঠে নেমেছেন। তিনি বলেন, বিগত ১৮ বছরের উন্নয়ন বিবেচনা করে ঠান্ডা মাথায় চিন্তা করে আপনারা প্রার্থী নির্বাচন করবেন এবং আপনাদের মুল্যবান ভোট দিবেন। আমরা এই অবহেলিত পৌরসভার পরিবর্তন চাই।

বিএনপি থেকে পৌর যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক মশিউর রহমান বলেন, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার জন্য আমি গনজোয়ার সৃষ্টি করব। তবে জনগণ আমাকে অবশ্যই মূল্যায়ন করবে এবং বিপুল ভোটে আমি জয়লাভ করব ইনসা আল্লা।

এদিকে, বিএনপি থেকে অপর সম্ভাব্য প্রার্থী পৌর বিএনপির আহবায়ক কমিটির অন্যতম সদস্য প্রভাষক খুশবর রহমান দলীয় সমর্থন নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিতে মতামত প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, দল ও জনগণ আমাকে সমর্থন দিলে এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে আমি জয়লাভ করব। তিনি আরো বলেন, পৌরসভার জনগণের প্রতি আমার শতভাগ আস্থা ও বিশ্বাস রয়েছে এবং নির্বাচিত হলে জনসাধারণের সকল প্রকার নাগরিক সুযোগ-সুবিধা প্রদান করা হবে।

এছাড়াও পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর মেয়র আলাউদ্দিন আলো দলীয় প্রতীকে নির্বাচনে অংশগ্রহণে আশা প্রকাশ করেছেন।এর আগে গত নির্বাচণে বিএনপি দলীয় সমর্থনে মেয়র পদে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন। তিনি বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ হলে আমি জয়লাভ করবো এবং আমার জনগেণের প্রতি আমার পূর্ণ বিশ্বাস আছে। জনগণ আমাকে মূল্যায়ন করে নির্বাচিত করবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here