টঙ্গীতে দুর্ষর্ধ ডাকাতি নগত টাকাসহ স্বর্ণালংকার লুট

0


সময় সংবাদ বিডি ঢাকা: জাহাঙ্গীর আকন্দ, টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি: টঙ্গী পশ্চিম থানাধীন সাতাইস মধ্যপাড়া এলাকার দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। গতকাল শনিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে সাতাইশ মধ্যপাড়া এলাকার খান বাড়ীতে ডাকাত চক্রের সদস্যরা বাড়ীর সকল সদস্যকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ১ লক্ষ ৬০ হাজার টাকা ও ১৫ ভরি স্বর্ণসহ বিভিন্ন মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাড়ীর মালিক মোতাহের হোসেন খান বলেন, স্ত্রী জেসমিন আক্তার ডলি, তিন মেয়ে মোছাম্মত তাঁহিরা খানম আফিফা, মৌসুমী, নওসিন খানম ও নাতি কুদরত লস্কর কে নিয়ে প্রতিদিনের মতো ঘুমাচ্ছিলাম হঠাৎ করেই ৫/৬ জন অল্প বয়স্ক ছেলে আমার রুমে ঢুকে আমাকে ডাক দেয়। আমি চোখ মেলে তাকাতেই দেখতে পাই আমার মাথার সামনে অস্ত্র ধরে কয়েকটা ছেলে দাঁড়িয়ে আছে। এদের ছয় জনের মধ্যে এক জনের মুখ খোলা এবং দুই জনের মুখে মাক্স পরা ছিলো ও অন্য তিনজনের মুখে রুমাল বাধা ছিলো। ডাকাত দল আমার হাত পা বেধে জিজ্ঞেস করলো বাড়ীতে কোথায় কি আছে। আমি আমার স্ত্রীকে বললাম চাবি দেওয়ার জন্য। ডাকাতদের হাতে অস্ত্র থাকায় আমাদের কিছু করার ছিলনা। এরা আলমারিতে থাকা এক লক্ষ টাকা ও পনের ভরী স্বর্ণ ও অন্যান্য স্থান থেকে আরো প্রায় ৭০ হাজার টাকা নিয়ে যায়। যাওয়ার আগের আমাদের মোবাইল ফোন গুলো থেকে সিম কার্ড খুলে নিয়ে যায় এবং বাড়ীর মেইন গেইট তালা দিয়ে চলে যায়।

পরে আসপাশের লোকজন আমাদের চিৎকার শুনে আমাদের বাসায় আসে। এসময় বাড়ীর দ্বিতীয় তলার রান্নাঘরে ঢুকে দেখতে পাই জানালার গ্রীল কাটা। সকাল সাতটায় আত্মীয় স্বজনদের সাথে পরামর্শ করে টঙ্গী পশ্চিম থানায় খবর দিলে পুলিশ বাড়ীতে আসে।

সরোজমিনে গিয়ে দেখা যায় গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী কমিশনার থোয়াই অং প্রো মারমা ও ওসি এমদাদুল হক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছেন। এছাড়াও সিআইডি’গাজীপুরের এএসপি এনায়েত করিম ও সিআইডির ক্রাইম সিন টিমের সদস্যরা ঘটনাস্থল পর্যবেক্ষণ করছেন।

এবিষয়ে টঙ্গী পশ্চিম থানার ওসি এমদাদুল হকের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ডাকতির সুষ্ঠ তদন্দের স্বার্থে এই মুহূর্তে কিছু বলতে পারছিনা। এ বিষয়ে পরবর্তীতে আপনাদের জানানো হবে।

এঘটনায় সিআইডি’ গাজীপুরের এএসপি এনায়েত করিম বলেন, ডাকাত চক্রের সদস্যদের গ্রেফতারের জন্য আমরা আলামত সংগ্রহ করেছি। এঘটনায় গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here