তৃণমূলে নৌকা-ধানের শীষের লড়াই শুরু

0

Jhenidah-up-el1458614236

স্টাফ রিপোর্টার, সময় সংবাদ বিডি-

বিভিন্ন স্থানে সংঘাত-সংঘর্ষের মধ্যে সারা দেশে প্রথম ধাপে ৭১৭টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়েছে ইউপি নির্বাচনের প্রথম ধাপের ভোটগ্রহণ। চলবে একটানা বিকেল ৪টা পর্যন্ত। এদিন সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী এলাকায় সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

ভোটগ্রহণের শুরুতেই বিভিন্ন জায়গায় সংঘর্ষে প্রায় অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়েছে। সাতক্ষীরায় কুমিরায় একটি কেন্দ্র দখলের চেষ্টার সময় পুলিশের গুলিতে ২ জন আহত হয়েছে।

সাতক্ষীরার কুমিরা ইউনিয়নে তিনটি কেন্দ্রে, সদরে দুটি ও শ্যামনগরে একটি কেন্দ্রে এবং বরিশালের কড়াপুরে একটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। শ্যামনগরে প্রিজাইডিং অফিসার লাঞ্চিত হয়েছেন।

পিরোজপুরের সোহাগদরের ১টি কেন্দ্র, বরিশালের গৌড়নদী ও আগৈলঝড়ায় ১২টি ইউনিয়নের সবকটি কেন্দ্র থেকে বিএনপির এজেন্টদের বের করে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

কারচুপির অভিযোগে বরিশালের দরিয়ারচড় খাজুরিয়া ইউনিয়নে আ.লীগ প্রার্থী আব্দুল কাদের এবং পটুয়াখালীর বগা ইউনিয়নে আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী এস এম ইউসুফ নির্বাচন বর্জন করার ঘোষণা দিয়েছেন।

লক্ষীপুরের হাজিরায় কেন্দ্র দখল নিয়ে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে ৩ জন আহত হয়েছে। এছাড়া শেরপুরের কলসপুরে একটি কেন্দ্রে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে কমপক্ষে ৪ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

লক্ষীপুরের তোরাগঞ্জে কেন্দ্র দখল নিয়ে সংঘর্ষ ও বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে ৭ জন আহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে আটক করা হয়েছে ২ জনকে।

দেশে প্রথমবারের মতো ইউপি নির্বাচন দলীয় প্রতীকে হচ্ছে। নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ ১৪টি দল প্রার্থী দিয়েছে। নির্বাচনে প্রায় ২ লাখ ফোর্স মোতায়েন করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। প্রথম ধাপের এ নির্বাচনে মঙ্গলবার হচ্ছে ৭১৭টি ইউপির ভোট।

এদিকে সোমবার প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কেউ দায়িত্ব পালনে অনিয়ম করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ভোট গ্রহণ কর্মকর্তা ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর দায়িত্বরতদের দায়ী করা হবে। কেন্দ্রে রাতে নিবিড় নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। কোনো কেন্দ্রে ভোটের আগের দিন রাতে সিল মারার খবর পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্ট থানার ওসি ও দায়িত্বরত কর্মকর্তা দায়ী হবেন।

ছয় ধাপে ৪ হাজার ২৭৯ ইউনিয়নে স্থানীয় সরকারের এ নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করে ইসি। গত ১১ ফেব্রুয়ারি প্রথম ধাপের ৭৫২ ইউপির তফসিল ঘোষণা করা হয়।

প্রথম দফার নির্বাচনে মোট ভোটার সংখ্যা ১ কোটি ১৯ লাখ ৪০ হাজার ৭৪১ জন, এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫৯ লাখ ৯৫ হাজার ২৬৯ জন, মহিলা ভোটার ৫৯ লাখ ৪২ হাজার ৬৯৪ জন। নির্বাচনে কেন্দ্রের সংখ্যা ৬ হাজার ৯৮৭টি এবং ভোটকক্ষের সংখ্যা ৩৫ হাজার ২৭১টি।

নির্বাচন উপলক্ষে সোমবার থেকেই নির্বাচনী এলাকার মাঠে নেমেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। পুলিশ, র‌্যাব, আনসার, বিজিবি, কোস্টগার্ডসহ বিভিন্ন সংস্থার প্রায় ২ লাখ ফোর্স মাঠে রয়েছে। রোববার মধ্যরাত থেকেই বন্ধ হয়েছে সব ধরনের নির্বাচনী প্রচারণা। ইউপি নির্বাচনে সাধারণ ও ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রভেদে ১৭ থেকে ২০ জনের নিরাপত্তারক্ষী দল রয়েছে।

অন্যদিকে প্রতি উপজেলায় ২টি করে র‌্যাবের মোবাইল টিম ও ১টি স্ট্রাইকিং টিম এবং প্রতি উপজেলায় ২ প্লাটুন বিজিবি মোবাইল ফোর্স ও ১ প্লাটুন স্ট্রাইকিং ফোর্স রয়েছে। উপকূলীয় অঞ্চলে প্রতি উপজেলার জন্য কোস্টগার্ডের ২ প্লাটুন মোবাইল ফোর্স ও এক প্লাটুন স্ট্রাইকিং ফোর্স রয়েছে। যারা ভোটের পরেও একদিন নিয়োজিত থাকবে।

– See more at: http://www.somoyerkonthosor.com/archives/369925#sthash.Wuz5kmIf.dpuf

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here