থমথমে রাজধানী হতাশার ছাপ দিনমজুর মানুষদের চোখে মুখে

0


সোশ্যাল মিডিয়া থেকে নেওয়া ছবি

সময় সংবাদ বিডি -ঢাকা: হতাশার ছাপ দিনমজুর মানুুষদের চোখে মুখে-নিস্তব্ধ ঢাকা শহর নেই আগের মতো যাত্রী। করোনা ভাইরাসের প্রভাবে ব্যস্ত নগরী ঢাকা এখন অনেক অংশ জুড়েই ফাঁকা। থমথমে রাজধানী নেই’ মানুষের জনের তেমন আনাগোনা। প্রতিটি পদ শূন্য ফাঁকা, রয়েছে সামান্য কিছু মানুষ কিন্তু এর পরেও মনে হচ্ছে শহর জনশূন্য।

এইদিকে ঢাকায় প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছে না এখন আর কেউ। ইতিমধ্যে অনেকেই অতিরিক্ত বাজার নিয়ে নিজ বাসায়,সহ পরিবার নিয়ে সময় কাটাচ্ছেন এবং অফিসের জরুরী কাজকর্মগুলো মোবাইল ফোনে কথা বলে সমাধান দিচ্ছেন। পাশাপাশি চোখ রাখছেন দেশ-বিদেশের সংবাদপত্রের পাতা গুলোতে ।

সম্প্রতি নোবেল করোনা ভাইরাসের প্রভাবে কিছুটা পরেছে বাংলাদেশ”এই কারণে রাজধানীতে নিম্নআয়ের মানুষ সবচেয়ে বেশি আতঙ্কে রয়েছেন। নেই আগের মতো যাত্রী। রাজধানীর মধ্যে বাড্ডায় এলাকায় চলতি পথে থাকা বেশকিছু রিক্সা চালকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, আগের তুলনায় এখন যাত্রী খুবই কম।

এসময় রসিক লাল-নামে একজন রিক্সাওলা বলেন আমরা খুব চিন্তা আছি বাড়িতে টাকা পাঠাতে হবে, এমনিতেই সংসারের নানা অভাব-অনটন। আমার পরিবার আমাকে বার বার ফোন করছে সমিতির কিস্তির টাকা দেওয়ার জন্য।

কথার ফাঁকে, এ সময় কেঁদে ফেললেন রিক্সার চালক রসিক লাল। দুই চোখে ক্রমশই ঝরে পড়ে তার অশ্রু জল। করোনা ভাইরাস বাংলাদেশ এসে আমাদের গরিব দুঃখী ও খেটে খাওয়া দিনমজুর মানুষকে,খুব বিপদে ফেলেছে। তাই এখন চিন্তা করছি আমি ঢাকা ছেড়ে বাড়ি চলে যাব -করব শাকসবজির চাষ। আচ্ছা আপনি কি বলতে পারেন কবে, যাবে করোনা ভাইরাস বাংলাদেশ থেকে। এ প্রশ্নের জবাবে তাৎক্ষণিক- উপস্থিত রিপোর্টার ওই রিক্সা চালক,রসিক লালকে সান্তনা দেন। বলেন চাচা চিন্তার কোন কারণ নেই, বাংলাদেশ সরকার যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন,খুব শীগ্রই এই প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক থেকে আমার সবাই মুক্তি পাবো ইনশাল্লাহ‌।

রিকশাচালক রসিক লাল,দীর্ঘ এক নিঃশ্বাস ফেলে বলেন,আল্লাহ রাব্বুল আলামীন বিশ্বের সকল মানব জাতিকে এই প্রাণঘাতী ভাইরাস থেকে সবাইকে হেফাজত করুন আমীন।

শুধু ঢাকায় নয়, নিম্নআয়ের মানুষের জনদের এখন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে,বাংলাদেশের আনাচে কানাচে। যারা দিন আনে দিন খায় এদের যেন, দুঃখ কষ্টের সীমা নেই। তাদের একটাই আকুতি- ইয়া আল্লাহ মুক্ত করা আমাদের এই প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের কবল থেকে।

তবে, বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের প্রভাব খুব তেমন একটা বেশি নয়। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে জানানো হয়েছে আতঙ্কের কিছু নেই।

নিজস্ব- সংবাদ’দাতা সময় সংবাদ বিডি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here