নতুন করে দেওয়া হবে শিল্প ও আবাসিক গ্যাস সংযোগ

0


সময় সংবাদ বিডি-ঢাকা

জসিম ভু্ঁইয়া

আগামী মে মাসের শেষ দিকে জাতীয় গ্রিডে আমদানিকৃত এলএনজি গ্যাস যুক্ত হবে।জাতীয় গ্রীডে গ্যাম যুক্ত হলে গ্যাসের বিদ্যমান সংকট কিছুটা কমবে বলে মনে করছে সরকার। এতে করে বাসা বাড়ি এবং শিল্প প্রতিষ্ঠানে নতুন গ্যাস সংযোগ দেওয়ার সুযোগ তৈরী হবে। জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রনালয় সূত্রে জানা গিয়েছে, জাতীয় গ্রীডে গ্যাসের পর্যাপ্ত মজুদ না থাকায় আবাসিকে গ্যাস সংযোগ দেয়া পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে সরকার। কিন্তু বিভিন্ন জেলায় সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে গ্যাস বিতরণকারী কোম্পানিগুলোর কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং স্থানীয় নেতাদের যোগসাজশে অনেক অবৈধ সংযোগ স্থাপিত হয়েছে। এছাড়া আনুষ্ঠানিকভাবে নতুন সংযোগ বন্ধ করে দেয়ার আগে অনেক গ্রাহক ব্যাংকে টাকা জমা দিয়ে ডিমান্ড নোটও পেয়েছে। কয়েক বছর ধরে এ ধরনের গ্রাহকদেরকে বৈধ সংযোগ দেয়ার উপায় খোঁজা হচ্ছিল। এমন অবস্থায় গত ২৪ এপ্রিল দেশে প্রথমবারের মত এলএনজি বা তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস আমদানি করা হয়েছে। আগামী মে মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে এ গ্যাস বাজারজাত করা যাবে। নতুন গ্যাসের আমদানী এবং বাজারজাত সম্পন্ন হলে উঠে যেতে পারে বহুতল আবাসিক বিল্ডিং এবং শিল্প প্রতিষ্ঠানে গ্যাস সংযোগ দেওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা।

নতুন গ্যাস সংযোগ দেয়া প্রসঙ্গে গত শনিবার জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ব্যবিদ্যালয়ে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, “সরকারের সিদ্ধান্ত হলো আবাসিক খাতে এ মুহূর্তে ঢালাওভাবে নতুন সংযোগ নয়। যারা ইতিমধ্যে সংযোগের জন্য আবেদন করে ব্যাংকে টাকা জমা দিয়ে ফেলেছেন তাদেরকে দেয়া হবে। এছাড়া যেসব ভবনের কিছু ফ্ল্যাটে সংযোগ আছে এবং কিছু ফ্লাটে নেই সেগুলোর বাকিগুলোতে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সংযোগ দেয়া হবে”। তিনি বলেন, “শিল্পে গ্যাস সংযোগে আর কোনো বাধা নেই। যেখানে শিল্প এলাকা সেখানেই গ্যাস সংযোগ দেয়া হবে”।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here