পেঁপের গুনাগুন নিয়ে ডাঃমোঃ ইসতিয়াখ আহাম্মেদের পরামর্শ

0


সময় সংবাদ বিডি -ঢাকা: আজকের বিষয় পেঁপে,পেঁপে বাংলাদেশে খুবই জনপ্রিয় ফল,বিশেষ করে গ্রীস্মকালীন সময়ে পাকা পেঁপের চাহিদা অনেক বেশী,কারন পেঁপে ঠান্ডা ও ভিটামিন এ জাতীয় ফল,এবং কাচা পেঁপের চাহিদা প্রায় সারা বছরই রয়েছে।

এটি তরকারীতে সবজি হিসেবে ব্যবহৃত হয়,পেঁপের উপকারিতা সমূহঃ ১.পাকা পেঁপের উপকারিতাঃ শরীর ঠান্ডা রাখে, মানষিক উত্তেজনা দূর করে,শরীরের জ্বালাপোড়া দূর করে,মাথা ঠান্ডা রাখে, ক্লান্তি দূর করে,রক্ত শূন্যতা দূর করে, চুলপড়া রোধ করে,হজমের দূর্বলতা দূর করে,২.কাচা পেঁপের উপকারিতা,পাকা পেঁপের চেয়ে কাচা পেঁপের উপকারিতা অনেক বেশী।

প্রতিদিন সকালে খালিপেটে ১০০ গ্রাম কাচা খেলে এসিডিটি,হাইপার এসিডিটি নিয়ন্ত্রনে থাকবে,ডায়াবেটিকস নিয়ন্ত্রনে থাকবে,উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রনে থাকবে, রক্তে এলার্জির মাত্রা বেড়ে গেলে প্রতিদিন সকাল এবং রাতে ১০০ গ্রাম করে কাচা পেঁপে খেলে এলার্জি পুরোপুরী নিয়ন্ত্রনে চলে আসবে,চর্ম রোগের জন্য কাচা পেঁপে খুবই কার্যকরী,দাঁদ(দাউদ)একজিমা(বিখাউজ) পাঁপড়ী( অন্ডকোষে চুলকানী) এই চর্মরোগ গুলোর জন্য কাচা পেঁপে প্রতিদিন সকালে ১৫০ গ্রাম করে নিয়মিত খেতে হবে,পাকা পেঁপের অপকারীতা সমূহঃ এসিডিটি,হাইপার এসিডিটি, ঠান্ডা কাঁশি,টন্সিল,গলা ব্যাথা ও নিওমোনিয়ার রোগীদের পাকা পেঁপে খাওয়া যাবেনা।

ব্রিঃ দ্রঃ কাচা পেঁপেতে কোন রকম অপকারিতা নেই। লিখেছেন-চর্ম ও যৌন রোগ বিশেষজ্ঞ’ কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হসপিটালের-সহকারী অধ্যাপক ডা: মোঃ ইসতিয়াখ আহাম্মেদ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here