ফুলবাড়ীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে হিন্দু বাড়ীতে হামলা, মন্দিরে অগ্নিসংযোগ, আটক -৬

0


নিজস্ব প্রতিবেদক, সময় সংবাদ বিডি: কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে হিন্দু পরিবারের বাড়ীঘরে হামলা, মন্দিরে অগ্নিসংযোগ ও প্রতিমা ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে হামলাকারী সন্দেহে ৬ জনকে আটক করেছে। ইউএনও মোছা: মাছুমা আরেফিন ও কুড়িগ্রামের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মেনহাজুল আলম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এদিকে যে কোন ধরনের বিশৃঙ্খলা এড়াতে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
জানা গেছে,উপজেলা সদরের কবিরমামুদ গ্রামের মৃত হরেন্দ্র নাথ রায়ের ছেলে স্কুল শিক্ষক হরিকান্ত রায়ের সাথে একই গ্রামের মৃত হানিফ উদ্দিনের ছেলে দুলাল হোসেন গং এর ৫২ শতক জমির মালিকানা নিয়ে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছে। এর জের ধরে শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে ২০/২৫ জনের একটি দল হরিকান্ত রায়ের বসতবাড়ীতে হামলা চালায়। এসময় বাড়ীর সামনের উঠানের দুর্গামন্দিরে অগ্নিসংযোগ এবং সেখানে থাকা প্রতিমা ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে হামলাকারী সন্দেহে ৬ জনকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। আটককৃতরা হলেন, মোস্তফা, ইসমাইল, মুকুল, সোবাহান, রশিদ ও শামছুল। পরে হরিকান্ত রায়ের বড়ভাই সুশীল চন্দ্র রায় বাদী হয়ে ২৪ জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেন।
স্কুল শিক্ষক হরিকান্ত রায় জানান, আমাকে মেরে ফেলার জন্য তারা আমার বাড়ীতে হামলা করে। কিন্তু বাড়ীতে প্রবেশ করতে না পেরে মন্দিরে আগুন দেয়, মুর্তি ভাংচুর করে। আমি এই ঘটনার উপযুক্ত বিচার চাই।
আটককৃতদের মধ্যে মোস্তফা ও মুকুল জানান, হিন্দুবাড়ীতে হামলা বা মন্দিরে আগুন দেয়ার বিষয়ে আমরা কিছুই জানিনা। ঘটনাটি সাজানো।
ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ খন্দকার ফুয়াদ রুহানী জানান, এ ঘটনায় হিন্দু পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়ের হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।
ইউএনও মোছা: মাছুমা আরেফিন জানান, সংবাদ পেয়ে দ্রæত ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। বিষয়টি সাম্প্রদায়িক নয়, জমিজমা সংক্রান্ত।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here