মান্দায় খননকৃত পুকুর পুনরায় ভরাট!

0

আরিফ উদ্দিন রাসেল,মান্দা থেকে ঘুরে,
রাজশাহীঃ নওগাঁর মান্দা উপজেলায় আধা খননকৃত পুকুর পুনরায় ভরাট করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল হালিম।

জানা গেছে, গত বছর রাজশাহী- নওগাঁ রোডে মান্দা উপজেলার সাবাই বাজার এলাকার দখিনা বিলে ফসলি জমি নষ্ট করে কিছু অসাদু ব্যবসায়ী পুকুর খনন শুরু করে। এমন খবর উপজেলা প্রশাসনের নজরে এলে তৎক্ষনাৎ অভিযান চালিয়ে খননের কাজ বন্ধ করে দেন।

পরবর্তীতে আর তাদেরকে অবৈধ পুকুর খননের অনুমোদন দেয়নি উপজেলা প্রশাসন। এরপর দির্ঘ কয়েকমাস আবাদি জমি পরিত্যক্ত থাকায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল হালিমের নির্দেশনা মোতাবেক জমির মালিকেরা দুই পাহাড়ির মাটি দিয়ে পুনরায় ভরাটের কাজ শুরু করেছেন। বর্তমানে খননকৃত পুকুরটি ভরাটের কাজ অব্যাহত রয়েছে।

আজ মঙ্গলবার বিকালে সময় সংবাদ বিডির সরেজমিন প্রতিবেদনে, দেশের বিভিন্ন উপজেলা প্রশাসন যখন এব্যাপারে উদাসীন ঠিক তখন মান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার এমন দ্বায়িত্বশীল ও অনন্য দৃষ্টান্ত মুলক কাজের উদাহরণ উঠে এসেছে।

এবিষয়ে নির্বাহী কর্মকর্তার মো. আব্দুল হালিম সময় সংবাদ বিডিকে বলেন, আবাদি কৃষি জমি নষ্ট করে যারা পুকুর খনন করে আমি তাদের ব্যাপারে সতর্ক অবস্থানে আছি।

আব্দুল হালিম বলেন, উপজেলার সকল তহসিলদারকে নিয়ে আমি মিটিং-এ আলোচনা করেছি। এবং নির্দেশ দিয়েছি যেন কোন ব্যাক্তি পরবর্তীতে আর আবাদি জমি নষ্ট করে খনন না করতে পারে। তারাও এখন এব্যাপারে আমাদের মত সতর্ক অবস্থায় আছে। তাই মান্দা উপজেলায় আবাদি কৃষি জমি নষ্ট করে পুকুর খননের কোন সুযোগ নেই।

তিনি বলেন, আবাদি কৃষি জমি নষ্ট করে পুকুর খনন করা হচ্ছে যা পরবর্তীতে মারাত্নক আকার ধারণ করার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। তাই এ ব্যাপারে আমি কোন ভাবেই ছাড় দেয়নি আর ভবিষ্যতেও ছাড় দেওয়া হবেনা।

অবশ্য তিনি দেশের জন্য হুমকি সরুপ যে কোন অবৈধ কজের ব্যাপারে সতর্ক থাকার জন্য সকলকে অনুরোধ জানিয়েছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here