মেজর সিনহা হত্যায় দোষ স্বীকার:১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন মামলার আসামি

0


 

সময় সংবাদ বিডি- ঢাকা: বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলায় ১৬৪ ধারায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন মামলার আসামি আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) সদস্য কনস্টেবল আব্দুল্লাহ। বুধবার বিকাল ৪ টার দিকে জবানবন্দি নেয়ার জন্য তাকে কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহর আদালতে তুলে র‌্যাব। এরপর রাত ৮টা ১৫ মিনিট পর্যন্ত তার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণ করেন আদালত। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা র‌্যাব-১৫ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার খায়রুল আলম গণমাধ্যমকে এই তথ্য জানিয়েছেন।

র‌্যাব সূত্রে জানা যায়,সিনহা হত্যা মামলায় ১৭ আগস্ট টেকনাফের বাহারছড়ার শামলাপুর লামার বাজার সংলগ্ন মেরিন ড্রাইভে দায়িত্বরত এপিবিএনর তিন সদস্যকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়। গত ১৮ আগস্ট এ হত্যা মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে সোপর্দ করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। আদালত সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। ২৩ আগস্ট তাদের রিমান্ড হেফাজতে নেয় র‌্যাব। এরই মধ্যে এপিবিএনের বাকি দুই সদস্য হলেন এসআই মো.শাহজাহান ও কনস্টেবল মো.রাজিব।

আলোচিত এই মামলায় এখন পর্যন্ত এ নিয়ে মোট ১৩ আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে পুলিশ সদস্য সাতজন, এপিবিএন সদস্য তিনজন, বাকি তিনজন মামলার সাক্ষী। তাছাড়া আগামীকাল বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দফায় রিমান্ড শেষে অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো.রাশেদ খান হত্যা মামলার অন্যতম আসামি বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ,ইন্সপেক্টর লিয়াকত আলী ও এসআই নন্দ দুলাল রক্ষিতকে আদালতে হাজির করার কথা রয়েছে।

হত্যা

প্রসঙ্গত গত ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের মেরিন ড্রাইভ সড়কে তল্লাশি চৌকিতে পুলিশের গুলিতে নিহত হন মেজর অব. সিনহা মো.রাশেদ। ৫ আগস্ট টেকনাফ থানার বরখাস্তকৃত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, বাহারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক লিয়াকত আলীসহ নয়জনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহত সিনহার বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস। পরদিন আদালতে আত্মসমর্পণ করেন ওসি প্রদীপসহ সাত আসামি। মামলার ১৩ আসামির সবাই কারাগারে রয়েছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here