1. netpeak.ch@gmail.com : And another shiny day with www.yahoo.com And another shiny day with www.yahoo.com : And another shiny day with www.yahoo.com And another shiny day with www.yahoo.com
  2. anglea_redman35@seasonhd.ru : anglearedman53 :
  3. asik085021@gmail.com : asik asik : asik asik
  4. beau.challis51@wwin-tv.com : beauchallis46 :
  5. gloriapremov5@gmx.com : Beskilly :
  6. k.ip.o.nio.m@gmail.com : brookr9393 :
  7. k.iponio.m@gmail.com : caridaddehamel6 :
  8. alicaricco3ct@gmx.com : Certinde :
  9. charlotte-walters22@megogonett.ru : charlotte3709 :
  10. claudio.pimentel@4kmovie.ru : claudiopimentel :
  11. k.i.p.o.n.i.o.m@gmail.com : clifton76x :
  12. darla_chong@4kmovie.ru : darlachong561 :
  13. kiponi.o.m@gmail.com : frederick9027 :
  14. newsdesk@somoysongbad.com : jashim Bhuyan : jashim Bhuyan
  15. pankrrusl_85@yahoo.com : jeanabignold033 :
  16. jeramy.viera@smotretonlinehdru.ru : jeramym8262533 :
  17. yulechka.sidorenko.99@inbox.ru : jffhjdjjrrf www.yandex.ru jffhjdjjrrf www.yandex.ru : jffhjdjjrrf www.yandex.ru jffhjdjjrrf www.yandex.ru
  18. jonnie_sigmon14@megogonett.ru : jonniesigmon1 :
  19. kelsey.taverner@megogonett.ru : kelseytaverner :
  20. leonie_howse8@smotretonlinehdru.ru : leonietxe7 :
  21. loretta-greener59@smotretonlinehdru.ru : lorettagreener :
  22. lenglocsebosc@mailcrunch.online : luciana81c :
  23. marjorie-putilin@smotretonlinehdru.ru : marjorie29s :
  24. marjorie_woodfull@4kmovie.ru : marjoriewoodfull :
  25. nurnobifulkuri@gmail.com : Nurnobi Sarker : Nurnobi Sarker
  26. snaceslutah@herbmail.xyz : ohlminnie86000 :
  27. highflicerspyri@citymail.online : raquelnation3 :
  28. arif.uddin46@yahoo.com : আরিফ উদ্দিন : আরিফ উদ্দিন
  29. arif.uddin0046@gmail.com : Md Sarker : Md Sarker
  30. u7v56vc66458u65@mail.ua : sammie26r058020 :
  31. 04rana@gmail.com : Somoy Songbad : Somoy Songbad
  32. tauhidodesk@gmail.com : Md Tauhidul Islam : মোঃ তৌহিদুল ইসলাম
  33. kondr.aleksey_1994@yahoo.com : taylorcarlos742 :
  34. test17738114@wintds.org : test17738114 :
  35. test41587796@wintds.org : test41587796 :
  36. test42722492@wintds.org : test42722492 :
  37. yasmin.harpster63@serialhd1080.ru : yasminharpster :
শুক্রবার, ২৯ অক্টোবর ২০২১, ০১:৫৮ পূর্বাহ্ন

মোহনপুরে অর্ধশত স্পটে চলছে মাদকের রমরমা বানিজ্য! হেরোইনে সয়লাব গ্রামাঞ্চল!

প্রতিবেদকের নাম
  • আপডেটের সময় : সোমবার, ৪ অক্টোবর, ২০২১
  • ৭৯৫ সময় দর্শন

মোহনপুর প্রতিনিধিঃ
রাজশাহীঃ রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলা জুড়ে অর্ধশত স্পটে চলছে মাদকের রমরমা বানিজ্য। অধিকাংশ স্পটে মরননেশা হেরোইনের বেচাকেনা চলছে অনেকটা হারহামেসায়। মরননেশা হেরোইন যেন এ উপজেলায় পাখির মত ডানা মেলে বসেছে। হা এটাই বাস্তব চিত্র মোহনপুর উপজেলার! সম্প্রতি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর করা মাদক ব্যাবসায়ীর তালিকা থেকে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে। এ উপজেলার ছয় ইউনিয়ন ও এক পৌরসভায় অর্ধশত মাদক কারবারি রয়েছে। এদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ৮/১০টি পর্যন্ত মাদক মামলা রয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর করা তালিকায় থাকা মুষ্টি কয়েক মাদক ব্যাবসায়ী বর্তমানে আটক রয়েছেন।

অনুসন্ধানে নেমে পাওয়া তথ্যমতে, পরিস্থিতি এতোটাই ভয়াবহ যে, উপজেলা সদর ও এর আশেপাশের হাতে গুনা বাকসিমইল, ভাতুড়িয়া, সইপাড়া থেকে পশ্চিমে কৃষ্ণপুর থেকে শ্যামপুর হাট এবং সইপাড়া থেকে পুর্ব ধারে পাকুড়িয়া থেকে কুটিবাড়ী পর্যন্ত একাধারে এই সাতটি গ্রামে খোঁজ করলে অনায়াসে বোঝা যায়, আগামীতে কি পরিমাণ সাংঘাতিক বিপর্যয়ের মুখোমুখি হতে হবে এ এলাকার জনগণের। বলা বাহুল্য! বর্তমানে মোহনপুর উপজেলার এমন গ্রাম অবশিষ্ট খুজে পাওয়া যাবেনা যে গ্রামে অন্তত ৫ থেকে ১০ জন হেরোইন সেবি নেই! আর এ এলাকার কেবল তারাই চুরি কাজে যুক্ত , যারা হেরোইন নামক সর্বনাশা এ মাদক সেবন করে থাকে। দুর্বিনের চোখে হয়তো দু-একজন খুজে পাওয়া গেলেও যেতে পারে। তবে খুঁজে পাওয়া গেলেও তারা মহা-অস্তিত্ব সংকটে ভুগছেন।

জানা গেছে, মোহনপুর থানা পুলিশের নাকের ডগায় দেদারছে চলছে মাদক কারবারিদের এহেন কার্যক্রম। তবে নিয়মিত পুলিশের মাদক বিরোধী অভিযানে ২/১ জন শীর্ষ মাদক কারবারি গ্রেফতার হলেও আইনের ফাঁকফোকড় এড়িয়ে খুব অল্প সময় হাজতবাস করে বেড়িয়ে আসে তারা। পরে ধিরে ধিরে কয়েকদিন পর আবার মাদকের সাথে সম্পৃক্ত হচ্ছে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তথ্য সূত্রে, হেরোইন ছাড়াও নির্দিষ্ট কিছু স্পটে চলছে ফেনসিডিল, গাজা ও ইয়াবার কারবার। উপজেলার উল্লেখযোগ্য মাদক স্পটগুলোর মধ্যে জাহানাবাদ ইউনিয়নের তাহেরপুর পাকুড়িয়া গ্রাম রয়েছে সবার শীর্ষে। এই গ্রামে মাদক সম্রাট থেকে মাদক সম্রাজ্ঞী সবাই হেরোইন কারবারের সাথে জড়িত। গ্রামের বাসিন্দা বাদশার ছেলে আজমল হোসেন একজন মাদক সম্রাট। একদিনেই মাদক কেনাবেচা করেন প্রায় লক্ষাধিক টাকার ওপরে। আজমল ইয়াবা ও হেরোইনসহ কিছুদিন আগে র‍্যাবের হাতে আটক হলেও জামিনে বেরিয়ে এসেছে। এর পরেই একই গ্রামের ইসরাফিলের স্ত্রী শীর্ষ মাদক সম্রাজী পারুল বিবি ও তার ছেলেকে হেরোইন ও ইয়াবাসহ আটক করে থানা পুলিশ। এছাড়াও এই গ্রামে ও আশেপাশে রয়েছেন আরো পাঁচ মাদক কারবারি। তারা হলেন, তাহেরপুড় পাকুড়িয়া গ্রামের রমজাল আলীর ছেলে আইনাল হক, ইয়াদ আলী ও তার ছেলে সৈয়দ আলী, মতিহার গ্রামের হাসেমের ছেলে বেলাল ও তার ছেলে সুমন। এদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মাদক মামলা রয়েছে।

এছাড়াও উপজেলা জুড়ে ফেনসিডিল এর কারবারের মুলে রয়েছেন, সাকোঁয়া গ্রামের আজিমুদ্দিনের ছেলে তাছের হোসেন অরফে ফেন্সি তাছের, কেশরহাট পৌর এলাকায় রয়েছেন দুজন (সম্প্রতি জড়িত) ফেনসিডিল কারবারি। এরাও মাদক কারবারির সময় পুলিশ ও গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবির) হাতে আটক হয়েছেন একাধিকবার। উপজেলা সদর বাকসিমইল ইউনিয়নের বাকসিমইল গ্রামের শ্রী নিমায় এর ছেলে শীর্ষ মাদক (হেরোইন) ব্যাবসায়ী শ্রী নিত্য ছাড়াও আরো ২/৩ জন সম্প্রতি এ ব্যাবসায় জড়িয়েছেন। উপজেলার ভাতুড়িয়া গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে সবিল ও তারই একশীর্ষ মনির জড়িত রয়েছেন হেরোইন ও ইয়াবা ব্যাবসায়। ঢোরসা গ্রামে দুইটি গাঁজার স্পট রয়েছে। গাঁজার স্পট দুটি পরিচালনা করেন মোস্তাকিন ও জনি নামের একাধিক মাদক মামলার আসামী। উপজেলার ধুরইল গ্রামের মৃত আয়েজ মোল্লার ছেলে তোতা মিয়া ও ধুরইল তালেব পাড়ার মৃত মোসলেম সর্দারের ছেলে সেলিম রেজা রয়েছেন হেরোইন ব্যাবসায়। এছাড়াও ঘাষিগ্রাম ইউনিয়নের শ্যামপুর হাট মুনুপাড়া গ্রামের মোজাম, কৃষ্ণপুর গ্রামের তমিরের ছেলে জালফর, সইপাড়া গ্রামের আলাউদ্দিন, গোছা গ্রামের ইয়ার উদ্দিনের ছেলে হেরোইন ব্যাবসায়ী নাসির উদ্দীন ও বজলুর রহমানের ছেলে পারভেজ রেজা রয়েল, গাঁজা ব্যাবসায়ী তৈয়ব আলীর ছেলে নইমুদ্দিন ছাড়াও আরো ২/৩ জন রয়েছে বিভিন্ন মাদক ব্যাবসায়ীদের তালিকায়। কেশরহাট পৌর এলাকার তিলাহারী গ্রামের গাঁজা ব্যাবসায়ী রহিম বক্সের ছেলে আয়নাল ও চুলায় মদ ব্যাবসায়ী সাকৌয়া গ্রামের মৃত আবুবকরের ছেলে শুকুর আলী। পৌর এলাকার গুপইল গ্রামের গাঁজা ব্যাবসায়ী মুনসুর রহমানের ছেলে জাবেদ আলীসহ হরিদাগাছি গ্রামের আরো ২/১ টি স্পটে হেরোইনের কারবার চলে। মৌগাছি ইউনিয়নের বাটুপাড়া গ্রামের মৃত সতিস চন্দ্রের স্ত্রী বিশিষ্ট গাঁজা ব্যাবসায়ী শ্রীমতী রানী, একই গ্রামের চুলায়মদ ব্যাবসায়ী নাছির উদ্দীনের ছেলে ঝাড়ু মন্ডল, মৌপাড়া গ্রামের এজাজুল হকের ছেলে শফিকুল ইসলাম। উপজেলার দুর্গাপুর গ্রামের মানিকের ছেলে শীর্ষ হেরোইন কারবারি রবিউল ইসলাম। সে অবশ্য সপ্তা দুয়েক আগে র‍্যাবের পাতা জালে প্রায় কোটি টাকার হেরোইনসহ ধরা পড়ে।

উপজেলা জুড়ে আরোও অর্ধশত নতুন মাদক স্পট রয়েছে যা পরবর্তীতে ধারাবাহিক প্রতিবেদনে তুলে ধরা হবে। আর সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে যেন হেরোইনের বেচাকেনার ও সেবন ব্যাপকভাবে বেড়েই চলেছে। তাই আর দেরি না করে এখনি এদের লাগাম টেনে ধরতে হবে। এই সমাজ থেকে মাদক উৎখাত করতে হবে। সময়ের কালক্ষেপণে যেন যুবসমাজের ধংশ অনিবার্য। তাই জুরুরিভাবে মাদকের শেকড়বাকড় উপড়ে ফেলতে প্রশাসনের অগ্রনী ভুমিকার বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন সুশীল সমাজের অনেকে।

এদিকে, মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত অভিযান চলছে বলে জানিয়েছেন মোহনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তৌহিদুল ইসলাম। তিনি বলেন, সম্প্রতি এ উপজেলায় হেরোইনের কারবারিরা নতুন নতুন পন্থায় বিস্তার লাভের চেষ্টা করে যাচ্ছে। নিত্যনতুন কৌশল অবলম্বন করছে তারা। তবে আমরাও তাদের কৌশল রপ্ত করে এগিয়ে যাচ্ছি।যেই মাদকের সাথে সম্পৃক্ত হবে আমরা তাকেই গ্রেফতার করবো। একারনে আমরা নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করছি। এছাড়াও মাদক ব্যাবসায়ীদের ব্যাপারে আমাদের কাছে নতুন কোন খবর পৌছা মাত্র আমরা সেখানে অভিযান পরিচালনা করে মাদক ব্যাবসায়ীদের গ্রেফতার করছি এবং নিয়মিত মামলা দিয়ে আদালতে প্রেরণ করছি। তিনি আরও বলেন, আগামীতে আমাদের মাদক বিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে। আমরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সবসময় কাজ করে যাচ্ছি।

উল্লেখ্য, মোহনপুর উপজেলার পুরাতন বেশকিছু মাদক কারবারি ব্যাবসা ছেড়ে দিয়ে নতুন করে জীবিকা নির্বাহের জন্য সঠিক পথে ফিরে এসেছেন। তারা এখন সুখে শান্তিতে জীবন যাপন করছেন বলে নজীর রয়েছে। তবে তাদের সঠিক পথে ফিরিয়ে আনার ব্যাপারে থানা পুলিশের অগ্রণী ভুমিকা রয়েছে। আবার উপজেলার আমরাইল গ্রামের মামুন নামের এক মাদক ব্যাবসায়ীকে নতুন ভ্যান গাড়ি কিনে দিয়েও মাদক ব্যাবসা ছাড়াতে পারেনি পুলিশ! সেই নজিরও রয়েছে।




সামাজিক মিডিয়াতে শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরও খবর




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *