মোহনপুর গার্লস ডিগ্রী কলেজের অবৈধ প্রাচীর নির্মানের অভিযোগ!

0


ডেস্ক নিউজ, সময় সংবাদ বিডি-
রাজশাহীঃ রাজশাহীর মোহনপুরে কলেজের মাঠ সম্প্রসারণের নামে মালিকানা জমি দখল করে অবৈধ প্রাচীর নির্মানের অভিযোগ উঠেছে মোহনপুর গার্লস ডিগ্রী কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে। এবিষয়ে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রতিকার পেতে গত বছর ২১ শে ডিসেম্বর রাজশাহী জেলা প্রশাসক বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী জমির মালিকরা।

লিখিত অভিযোগে তপশীল উল্লেখ করে বলা হয়েছে, মোহনপুর মৌজার জে,এল,নং ১২২ দাগের সম্পত্তি আনেক আগে থেকে ফসলাদী ও বসত বাড়ি নির্মান করে ভোগ দখল করে আসছে অভিযোগ কারিরা।

কিন্তু তফসীলে বর্নিত সম্পত্তি মোহনপুর গার্লস ডিগ্রী কলেজ সংলগ্ন হওয়ায় কলেজ কর্তৃপক্ষ মাঠ সম্প্রসারণের নামে উল্লেখিত সম্পত্তির উপর আংশিক প্রাচীর নির্মান করে অবৈধ ভাবে দখল ও অবরুদ্ধ করেছে।

অভিযোগে উল্লেখ আছে, উক্ত সম্পত্তি ক্রয় না করেই জোর করে প্রাচীর নির্মান করেছে। এবং জমি অকার্যকর করার জন্য বাহিরে যাতায়াতের রাস্তা বন্ধ করে অবৈধ ভাবে আংশিক প্রাচীর নির্মান করেছেন।

তাই সরজমিন তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করে সুবিচার করার জন্য জেলা প্রশাসকের নিকট বিনিত অনুরোধ জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

জেলা প্রশাসক অভিযোগটি আমলে নিয়ে সরজমিন তদন্ত করে রিপোর্ট প্রদানের জন্য মোহনপুর উপজেলা সহকারী কমিশনারকে (ভুমি) নির্দেশনা দিয়েছেন।

এদিকে, জেলা প্রশাসকের দেয়া নির্দেশনার পর এক মাস পার হলেও এবিষয়ে কোন পদক্ষেপ গ্রহন করেনি উপজেলা প্রশাসন। আর উপজেলা প্রশাসনের এমন নিরব ভূমিকায় অনেকটা বিষ্ময় প্রকাশ করেছেন অভিযোগ কারি ভুক্তভোগীরা।

অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার না পাওয়ায় এক ভুক্তভোগী মুঞ্জুর কাদির সময় সংবাদ বিডিকে বলেন, জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগ করার পর ১১ দিনের মাথায় তিনি সরজমিন তদন্ত করে রিপোর্ট প্রদানের জন্য মোহনপুর উপজেলা এসিল্যান্ডকে দায়িত্ব দেন। এরপর এক মাস অতিবাহিত হলেও আমরা এর কোন প্রতিকার পাইনি।

তবে বিষয়টি নিয়ে বেশ কয়েকবার উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) এর সাথে যোগাযোগ করেছেন মুঞ্জুর কাদির। কিন্তু তাতেও কোন সুফল পাননি তিনি।

এবিষয়ে মোহনপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) জাহিদ বিন কাসেম সময় সংবাদ বিডিকে বলেন, অভিযোগটি আমি দেখেছি। কিন্তু অভিযোগ পেয়েছি কয়েকদিন আগেই। কাজের ব্যাস্ততায় এখনো যেতে পারিনি।

তিনি বলেন, সুযোগ পেলেই আমি সার্ভেয়ার নিয়ে সরজমিন তদন্তে যাবো। এরপর সঠিক বিষয়টি জানা যাবে।

তবে এমন অভিযোগের ব্যাপারে কিছুই জানা নেই বলে সময় সংবাদ বিডিকে সুস্পষ্ট জানিয়েছেন মোহনপুর গার্লস ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল মালেক মন্ডল।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here