রাজশাহীর বাগমারায় টাইফয়েডে এক কৃষকের মৃত্যু, গুজব না ছড়ানোর অনুরোধ পরিবারের

0



ডেস্ক নিউজ, সময় সংবাদ বিডি-
রাজশাহীঃ রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার খালগ্রাম বিষ্ণপুর গ্রামে টাইফয়েডে আক্রান্ত হয়ে খলিলুর রহমান প্রামাণিক (৫০) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার সকালে নিহত ব্যাক্তি মলত্যাগ করা অবস্থায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

তবে নিহত ব্যাক্তির শরীরে করোনার নির্দিষ্ট কোন লক্ষন না থাকলেও নমুনা সংগ্রহ করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। ল্যাবের রিপোর্ট দেখার পর নিশ্চিত করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ড. রাব্বানী।

তিনি সময় সংবাদ বিডিকে বলেছেন, উপজেলার সকল গ্রামে আমাদের স্বাস্থ্য কর্মিরা প্রতিনিয়ত খোঁজ খবর রাখছেন। তাছাড়া নিহত ব্যাক্তি একজন কৃষক ও দিনমজুর। তিনি দীর্ঘদিন বাড়িতে ছিলেন। দুরে কোথাও যাননি। এমনকি বাহির থেকে আগত কারোও সংস্পর্শেও যাননি। এছাড়া তিনি আগে থেকে টাইফয়েড সংক্রান্ত জটিলতায় ভুগছিলেন। তাই যেহেতু করোনায় সংক্রামিত হওয়ার কোন সম্ভাবনা তার মধ্যে ছিলোনা সেহেতু আমরা একেবারেই ধরে নিতে পারি তিনি করোনায় সংক্রামিত নন।

তিনি আরো বলেন, যদিও কোন সুনির্দিষ্ট লক্ষন ছাড়াও অনেকে করোনায় সংক্রামিত হতে পারেন বা একজন সুস্থ মানুষের শরিরেরও করোনা পজিটিভ হতে পারে তাই কেবল নমুনা পরিক্ষার রিপোর্ট আসার পর পজিটিভ হলেই করোনা সংক্রামিত বলা যাবে। তার আগে সাধারণ মৃত্যু বলার বিকল্প নেই। এজন্য তিনি এমন মৃত্যুতে করোনা ভাইরাস নিয়ে আতংক না ছড়ানোর অনুরোধ জানান।

এদিকে, খলিলুর রহমান প্রামাণিকের মৃত্যু টাইফয়েড জনিত কারনেই হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন ছেলে দুলাল প্রামাণিক।

দুলাল প্রামাণিক বলেন, আমার বাবার মৃত্যুর আগে তার শরীরে করোনার কোন লক্ষন দেখা যায়নি। অতিরিক্ত মলত্যাগ করায় শরীরে অনেকটা দুর্বলতা দেখা দেয়। এরপর মেডিক্যালে যাওয়ার পথে তিনি মারা গেছেন।

তাই আমার বাবা করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন এটা সঠিক নয়। এবং এতে গুজব বা বিভ্রান্ত না ছড়ানোর জন্য তিনি সকলের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here