শূন্য জনপথ থমকে গেছে জনজীবন

0


নিজস্ব প্রতিবেদক’সময় সংবাদ বিডি- ঢাকা: করোনা ভাইরাস পাল্টে দিয়েছে সারাদেশের জীবনযাত্রা। থমকে গেছে জনজীবন। কোথাও লোক জনের ভিড় নেই, চলাচলও নেই। বাস, নৌযান, কল-কারখানাসহ বন্ধ দোকানপাট। শহরে গ্রামে সমানতালে স্থবির হয়ে পড়েছে অর্থনীতি। গতকাল ৩টায় রাজধানীর মেরুল বাড্ডায় সময় সংবাদ বিডির প্রতিনিধি, ছবি তোলার সময় দেখা যায় রাস্তা একেবারেই ফাঁকা।

জরুরি যেসব দোকানপাট বাজার খোলা রাখার কথা তারও অধিকাংশ বন্ধ। মানুষ আসলে ঘরবন্দি হয়ে পড়েছেন। বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষের বক্তব্য,করোনা ভাইরাসের প্রভাবে ব্যবসা-বাণিজ্য অর্থনীতি স্থবির হয়ে পড়েছে। বিশেষ জরুরি প্রয়োজন ছাড়া টাকার লেনদেন নেই বললেই চলে। যেসব দোকানপাটে বেচাকেনা হচ্ছে সেখানে যে যার মতো মূল্য হাঁকছে। দিন এনে দিন খাওয়া মানুষের দুর্গতি চরমে।

এইদিকে,করোনা ভাইরাস থেকে সমস্ত দেশবাসীকে মুক্তি করার জন্য-গতকাল
রাজধানীর বায়তুল মোকাররম মসজিদে জুম্মার নামাজ আদায় করার সময়,মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের” কাছে দোয়া চেয়েছেন মুসল্লিরা সকল দেশবাসীর জন্য।

শুধু তাই নয় দেখা গেছে, সরকারি ছুটি হওয়ায় মানুষ স্বেচ্ছা গৃহবন্দি হয়ে পড়েছে। অনেকদিন ধরে বাড়িতে জমে থাকা কাজগুলোয় হাত লাগাচ্ছে। কেউ টিভির সামনে বসে সময় পার করছে। করোনা ভাইরাসের সর্বশেষ খবর জানার চেষ্টা করছে।

স্থানীয় পত্রিকাগুলোর প্রকাশনা বন্ধ রয়েছে। আসছে না জাতীয় দৈনিকগুলো। ফলে সংবাদপত্র বিহীন সময় কাটাচ্ছে বিপুল সংখ্যক পাঠক। অনেকে পত্রিকা অফিসে ফোন করে জানতে চান কেন পত্রিকা পাওয়া যাচ্ছে না।

তার উপরে আবার, চৈত্র মাসের কোণঠাসা গরম। চৈত্র মাসের দাপট মধ্যভাগে এসে শুরু হয়েছে। গতকাল তাপমাত্রা উঠেছিল ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। সাথে ছিল গরম বাতাসের ঝাপটা। এই বিরুপ আবহাওয়া মানুষকে আরো ঘরবন্দি করেছে। সবার কায়মনোবাক্যে প্রার্থনা ইয়া” আল্লাহ প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের ছোবল থেকে মুক্তি দাও আমাদের।

অন্যদিকে, সারাদেশে গত মঙ্গলবার বিকাল থেকে বাংলাদেশ-ভারত আন্তর্জাতিক নৌ-প্রটোকলভুক্ত মোংলা-ঘাষিয়াখালী অভ্যন্তরীণ চ্যানেল দিয়ে ভারতের কলকাতা, বজবজ ও হলদিয়া বন্দরগামী রুটে প্রায় ৩শ’ কার্গো ও কোস্টার জাহাজ চলাচল বন্ধ রেখেছে বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন। আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত এ নৌরুটে নৌযান চলাচল বন্ধ থাকবে।

তবে, স্বাভাবিক রয়েছে মোংলা বন্দরে অবস্থানরত বিদেশি জাহাজের পণ্য বোঝাই-খালাস ও পরিবহন কাজে নিয়োজিত সকল নৌযানগুলো। অপরদিকে, করোনা আতঙ্কে ফাঁকা হয়ে যাচ্ছে বিভাগীয় নগরী খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট সহ বেশ কিছু জেলা।

সর্বশেষ এই সংবাদ লেখার,আগ মুহূর্ত দেশে এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত রোগীর সন্ধান না, মিললেও বাড়তি সতর্কতায় থমকে গেছে জনজীবন। তবে দুর্ভোগে পড়েছে খেটে খাওয়া মানুষ। মার্কেট,বিপণি বিতান, শপিংমল বন্ধ। তবে কিছু দোকানপাট খোলা থাকলেও ক্রেতাশূন্য।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here