সম্মেলনে সর্বকালের সর্ববৃহৎ জমায়েতের প্রস্তুতি নিচ্ছে আ’লীগ

0


সময় সংবাদ বিডি-ঢাকা:আসন্ন ২১তম জাতীয় সম্মেলনে সর্বকালের সর্ববৃহৎ জমায়েতের প্রস্তুতি নিচ্ছে’ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। এ সম্মেলনে ৫০ হাজারের বেশি নেতাকর্মী জমায়েত হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

আগামী ২০ ও ২১ ডিসেম্বর এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। ওই দিন সকাল ১১টায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সম্মেলনের উদ্বোধন এবং সভাপতিত্ব করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ইতোমধ্যেই সম্মেলনের প্রস্তুতি প্রায় চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে বলে একাধিক দলীয় সূত্রে জানা যায়,এ সম্মেলন সফল করতে ১১টি প্রস্তুতি উপ-কমিটি গঠন করা হয়। আ’লীগের দলীয় সূত্রে আরো জানা যায় এবারের সম্মেলনের ব্যয় ধরা হয়েছে চার কোটি টাকা। এ সম্মেলনে কাউন্সিলরের সংখ্যা সাড়ে সাত হাজার এবং ডেলিগেটস তা প্রায় ২০ হাজার হবে বলে জানায় তারা। সব মিলিয়ে ৫০ হাজারের বেশি নেতাকর্মী ও সমর্থক সম্মেলনে সমবেত হবে বলে তাদের ধারণা।

সম্প্রতি গত ১৪ ডিসেম্বর প্রস্তুতি সভায় দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন ,এবারের সম্মেলনে কতো লোক সমাগম হবে স্পষ্ট করে এখনই সেটা বলা যাচ্ছে না। তবে এবারের সম্মেলনে জমায়েত অন্যান্য সম্মেলনগুলো ছাড়িয়ে যাবে। জেলা, উপজেলা পর্যায়ে প্রস্তুতি দেখে সেটাই ধারণা করছি। সর্বকালের সর্ববৃহৎ জমায়েত হবে।

আওয়ামী লীগের এবারের সম্মেলনের মঞ্চ ও প্যান্ডেল করা হয়েছে পদ্মাসেতুর আদলে। এ যাবতকালে আওয়ামী লীগের সম্মেলনের সবচেয়ে বড় প্যান্ডেল হবে এটি। মঞ্চের উচ্চতা হবে ২৮ ফুট, দৈর্ঘ্য ১৫০ ফুট ও প্রস্থ ১৪০ ফুট হবে। পেছনে ব্যানার ছাড়া সম্পূর্ণ ডিজিটাল মঞ্চ করা হয়েছে। ডিজিটাল ডিসপ্লেতে পদ্মার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য ফুটিয়ে তোলা হবে।

সমেলন ঘিরে ইতোমধ্যেই সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, এর আশাপাশ, রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্ট, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও দলের সভাপতির ধানমন্ডির কার্যালয়ে সাজসজ্জার কাজ চলছে।

এবারের প্যান্ডেলে ২৮টি এলইডি পর্দায় সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান তুলে ধরা হবে। কাউন্সিলর,ডেলিগেটস ও আমন্ত্রিত অতিথিদের জন্য ৩০ হাজারসহ মোট ৫০ হাজারের মতো চেয়ারের ব্যবস্থা রাখা হবে মঞ্চের সামনের প্যান্ডেলে। সম্মেলনের শৃঙ্খলা রক্ষা ও সার্বিক সহযোগিতার জন্য আওয়ামী লীগের কর্মীদের নিয়ে গঠিত ‍দুই হাজার স্বেচ্ছাসেবক কাজ করবে।

এছাড়া দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরাও থাকবেন উদ্বোধনী অধিবেশনে। সব মিলিয়ে একটি উৎসবমুখর পরিবেশে আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে বলে আমরা প্রত্যাশা করছি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here