১০ মে থেকে খোলা দোকানপাট ও শপিংমল তবে- বন্ধ করতে হবে বিকেল ৪টা মধ্যে

0


সময় সংবাদ বিডি- ঢাকা: পবিত্র রমজান এবং ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে সীমিত পরিসরে দোকান-পাট, শপিংমলগুলো স্বাস্থ্যবিধি মেনে আগামী ১০ মে থেকে খোলার অনুমতি দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। তবে উল্লেখ থাকে যে, সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের আলাদা এক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, কেনাবেচার সময় পারস্পরিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ অন্য স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন করতে হবে। বড় বড় শপিংমলের প্রবেশমুখে হাত ধোয়ার ব্যবস্থাসহ স্যানিটাইজারের ব্যবস্থা করতে হবে।

আজ সোমবার (৪ মে) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এক চিঠিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। এর আগে একই বিভাগের চিঠিতে বিকেল ৫টা পর্যন্ত শপিংমল ও দোকানপাট খোলা রাখা যাবে বলে জানানো হয়েছিল। তবে কবে থেকে দোকানপাট খোলা রাখা যাবে, সে বিষয়ে ওই চিঠিতে কিছু বলা ছিল না।

আগের চিঠির সূত্র ধরে এ বিষয়ে স্পষ্ট নির্দেশনা দিয়ে নতুন চিঠিতে বলা হয়েছে, করোনা ভাইরাসের (কোভিড-১৯) বিস্তার রোধ ও পরিস্থিতির উন্নয়নের লক্ষ্যে ৭ থেকে ১৬ মে পর্যন্ত (সাপ্তাহিক ‍ছুটিসহ) সাধারণ ছুটি বাড়ানো হয়েছে।

এ অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় দেশের বিভিন্ন জেলা, উপজেলায় অভ্যন্তরীণভাবে ব্যবসা-বাণিজ্য, দোকানপাট, শপিংমলসহ অন্যান্য কার্যক্রম আগামী ১০ মে থেকে সীমিত আকারে চালু রা যাবে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কার্যালয়গুলোকে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে চিঠিতে।

চিঠিতে আরো বলা হয়েছে, হাটবাজার, ব্যবসা কেন্দ্র, দোকানপাট ও শপিংমলগুলো সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত সীমিত রাখতে হবে। একইসঙ্গে প্রতিটি শপিংমলে প্রবেশের ক্ষেত্রে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের ব্যবহারসসহ স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয় ঘোষিত সতর্কতা অনুসরণ করতে হবে।

পবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে জনসাধারণের জন্য কেনাকাটার সুযোগ স্বার্থে উন্মুক্ত করে দেওয়া হলেও ঈদের ছুটিতে প্রত্যেককে নিজ নিজ স্থানেই থাকতে বলা হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, আসন্ন ঈদের ছুটিতে জনগণকে নিজ নিজ স্থানে থেকেই পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন করতে বলা হয়েছে। বলা হয়েছে আন্তঃউপজেলা ভ্রমণ বা বাড়িতে যাওয়া থেকে তাদের বিরত রাখতে হবে সবাইকে ।

এ বিষয়গুলো বাস্তবায়ন করতে সংশ্লিষ্ট দফতরগুলোকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা জারি করতে বলেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here